আফগানরা একটা অঘটনের জন্ম দিতে পারতো

স্পোর্টসঃ
ভারতকে মাত্র ২২৪ রানে আটকে দিয়ে অসম্ভবকে সম্ভব করার পথে হাঁটছিল আফগানিস্তান।

সাউদাম্পটনের রোজবোলে বিশ্বকাপের ২৬তম ম্যাচে একটা অঘটনের জন্ম দিতে পারতো আফগানরা।কিন্তু সম্ভব হলো না শেষ পর্যন্ত।

আফগানরা হারলেও একটা বার্তা দিয়ে রাখল বাংলাদেশকে। আগামী ২৪ জুন একই মাঠে আফগানদের প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ।

এই ম্যাচের আগে একটা ধারণা পেয়ে গেল বাংলাদেশ। আফগানদের দুর্বলতার সঙ্গে উইকেট।

রোজবোলে টসে জিতে ব্যাট করতে নামে ভারত। ব্যাটিংয়ে নেমে যাচ্ছেতাই অবস্থা দাঁড়িয়েছিল মোহাম্মদ নবী, মুজিব উর রহমানদের সামনে।

সোজা কথা, আফগান জাদুকরদের ঘূর্ণিতে ঘুরে গেল ভারতীয় লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ।

৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২২৪ রান তুলে নেয় ভারত। ইনিংসের সর্বোচ্চ ৬৭ রান আসে বিরাট কোহলির ব্যাটে।

শেষদিকে কেদার যাদবের ব্যাটে আসে ৫২ রান। বাকিরা কেউই পার হতে পারেনি ৩০ রানের কোটা।

আফগানদের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ নবী ও গুলবাদীন নাঈব।

এছাড়া ১টি করে উইকেট নেন মুজিবুর, আফতাব আলম, রশিদ খান ও রহমত শাহ।

এবার আফগান রূপকথা লেখার পালা রহমত-নবীদের ব্যাটে। শুরুটা যদিও ভালো হয়নি। ১০ রানে বিদায় নেন হযরত উল্লাহ জাজাই। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে গুলবাদীন নাঈব আর রহমত শাহ মিলে যোগ করেন ৪৪ রান। দলীয় ৬৪ রানের মাথায় ২৭ রানে গুলবাদীনের বিদায়ে জুটি ভাঙে।
তৃতীয় উইকেট জুটিতে আরও ৪২ রান আসে হাশমত উল্লাহ আর রহমতের জুটি থেকে। এই জুটি ভাঙে জাসপ্রিত ভুমরাহ’র বলে রহমতের বিদায়ে। পরের বলেই হাশমত উল্লাহ’র বিদায়ে চাপে পড়ে যায় আফগানরা।

শেষদিকে নবী-রশিদের জুটি নতুন করে স্বপ্ন দেখাতে শুরু করলেও যুযবেন্দ্র চাহালের বলে রান স্ট্যাম্পিং হয়ে আবারও শঙ্কা জাগে আফগান শিবিরে।

এই শঙ্কা কাটালেন নবী আর ইকরাম আলী খিল। শঙ্কার কালমেঘ সরিয়ে যখন জয়ের দ্বারপ্রান্তে, ঠিক তখনই ওভারের তৃতীয় বলে মোহাম্মদ শামীকে লং অনে মারতে গিয়ে ৫২ রান করে ফেরেন মোহাম্মদ নবী। পরের বলেই বোল্ড হয়ে ফেরেন আফতাব আলম। পঞ্চম বলে মুজিবুর রহমানকেও বোল্ড করে ফেরান শামী। দ্বাদশ বিশ্বকাপে প্রথম হ্যাট্রিক!

শেষ ওভারে ১৭ রান আর নেয়া হলো না আফগানদের, লেখা হলো না আফগান রূপকথা। ভারতের সঙ্গে বাইশ গজের লড়াইতে জয় হলো না আফগানদের। ক্রিকেট যে নিষ্ঠুর সৌন্দর্য!

ভারতের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন জাসপ্রিত ভুমরাহ, যুজবেন্দ্র চাহাল, হার্ডিক পান্ডিয়া আর ৪ টি উইকেট নেন মোহাম্মদ শামী। পাঁচ ম্যাচের চার ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলে ৩ নম্বরে ভারত।
-কেএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter