ইন্টারনেট বিস্তৃতিতে বিআইটিএল ও এআরআরএ একজোট

ইন্টারনেট বিস্তৃতিতে বিআইটিএল ও এআরআরএ একজোট

তথ্য প্রযুক্তিঃ

বাংলাদেশের প্রত্যন্ত এলাকায় ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক বিস্তৃত করতে বিজনেস ইনফরমেশন টেকনোলজি লিমিটেড (বিআইটিএল) যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক এআরআরএ নেটওয়ার্কস-এর সঙ্গে একজোট হয়েছে।


যার ফলে সাশ্রয়ী ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক অবকাঠামো তৈরিতে যুগান্তকারী এক পদক্ষেপ হতে চলেছে।


প্রতিষ্ঠান দুইটি একত্রে দেশে সবখানে ইন্টারনেট কভারেজ বাড়াবে। পাশাপাশি যারা এখানো ইন্টারনেট নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে পারেনি, তাদেরকেও ইন্টারনেটের আওতায় আনবে। ফলে ডিজিটাল কানেক্টিভিটি আরও বাড়বে বলে আশাবাদী।


বিআইটিএল এবং এআরআরএ দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে তাদের অল-ইন-ওয়াল সলিউশন বাংলাদেশ সরকারের ভিশন ২০৪১ অর্জনে সহায়ক হবে। কেননা, এই উদ্যোগ ২০২৫ সালের মধ্যে দেশের সবাইকে ইন্টারনেটের আওতায় আনা সম্ভব হবে।
প্রতিষ্ঠান দুইটি মনে করছে তাদের যৌথ উদ্যোগ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টার বিশ্বব্যাপী উদিয়মান ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে আদর্শ এক সমাধান।


সবার কাছে সরকারি তথ্য পৌঁছে দিতে ইন্টারনেট কানেক্টিভিটির প্রয়োজনীয়তার কথা মনে করিয়ে দেয় এই টেলিযোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান দুইটি।


এআরআরএ-এর সমন্বিত নেটওয়ার্ক সলিউশন অবিলম্বে একটি উল্লেখযোগ্য ও স্থায়ী সমাধান দেবে বলে প্রতিষ্ঠানটি আশা প্রকাশ করছে। এবং দেশের প্রত্যন্ত এলাকা, ইউনিয়ন এবং উপজেলা পর্যায়ে ৫জি রেডি নেটওয়ার্ক কভারেজ বিস্তৃত করবে। যাতে করে ডিজিটাল ইকোনমিতে বাংলাদেশ পৃথিকৃত হতে পারে।


বিদ্যমান অবকাঠামো এবং নেটওয়ার্ক সক্ষমতা ব্যবহার করে প্রযুক্তির সুবিধা এআরআরএ জনসংখ্যার বড় একটি অংশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়। যাতে করে স্কুল, সমাজ এবং গ্রামের মানুষ তথা সবাই ইন্টারনেটে সংযুক্ত হতে পারে।


প্রতিষ্ঠানটি বলছে, তাদের বহুমুখী উদ্ভাবনী বিস্তৃত প্রযুক্তি সুবিধাযুক্ত সলিউশন একটি তারবিহীন সমাধান। প্লে অ্যান্ড প্লে ফিচার সম্বলিত এই নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি ফাইবার নেটওয়ার্ক, এলটিই, ডিএসএল এবং স্যাটেলাইট নেটওয়ার্কের সমন্বয়ে ইন্টারনেটকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেবে।


তাদের আগামীর উন্নত ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক প্রযুক্তির সুবিধা জানিয়ে এআরআরএ বলছে, ‘আমাদের ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক সলিউশন কম খরচে বিস্তৃত এলাকায় কভারেজ সম্প্রসারণের একটি আদর্শ মডেল।’


ছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি বিস্তীর্ণ নেটওয়ার্ক ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার সুইট প্রদান করবে। একইসঙ্গে কার্যকর সিস্টেম পরিচালনার জন্য বহু-স্তরযুক্ত বিলিং সিস্টেম পরিচালনার সুবিধাও দেবে।
যুক্তরাষ্ট্রের এই টেলিযোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক বাংলাদেশে চালু হলে দুর্গম এলাকায় নেটওয়ার্ক পৌঁছানোর যে প্রতিবন্ধতা রয়েছে, যেমন-নদী, পাহাড় এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে নেটওয়ার্ক কভারেজ বিস্তৃত করতে আদর্শ সমাধান হবে।
পাশাপাশি ট্রেন, মেট্রো রেল ইত্যাদি যানবাহনে ভ্রমণ করার সময় নেটওয়ার্ক পরিষেবা উপভোগ করা যাবে।


২০২২ সালের ২৯ মে থেকে ২ জুন পর্যন্ত বিআইটিএল এবং এআরআরএ তাদের উদ্ভাবনী নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, জনপ্রতিনিধি এবং সামরিক বাহিনীর সামনে উপস্থাপন করেছে। এবং বাংলাদেশে এই শৈল্পিক ইন্টারনেট সলিউশন রোল আউট করতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে।

এআরআরএ-এর সক্ষমতা, বাজারে তাদের সুযোগসুবিধা এবং বাংলাদেশে এই উদ্ভাবনী ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে ই-মেইল করার করুন।

-শিশির

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter