এনএপিডিতে মিটিং ম্যানেজমেন্ট কার্যক্রম উদ্বোধন

এনএপিডিতে মিটিং ম্যানেজমেন্ট কার্যক্রম উদ্বোধন

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিঃ

১৩ জুলাই ২০২০ তারিখ সোমবার সকাল ১১:৩০ টায় অনলাইন জুম প্লাটফরমের মাধ্যমে বাংলাদেশ ই-গভর্নমেন্ট ইআরপি (২য় সংশোধিত) প্রকল্পের মাধ্যমে উন্নয়নকৃত “মিটিং ম্যানেজমেন্ট” মডিউলটি “জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমিতে (এনএপিডি)” ব্যবহার কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধনী করা হয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব জনাব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমির (এনএপিডি) সম্মানিত মহাপরিচালক ও সরকারের সচিব জনাব মোহাম্মদ আবুল কাসেম।

বাংলাদেশ ই-গভর্নমেন্ট ইআরপি (২য় সংশোধিত) প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. অশোক কুমার রায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি জানান যে, সরকারি অফিসসমূহের কার্যক্রম অটোমেশনের আওতায় আনয়নের লক্ষ্যে প্রকল্পের মাধ্যমে Event and Meeting Management, Inventory Management, Asset management এবং Procurement Management মডিউলসমূহের উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া, Human Resources Management, Budget, Accounts, Audit এবং Project Monitoring and Management মডিউলসমূহের কাজ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন হবে মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সার্বিক সহযোগীতা প্রদানের জন্য তিনি অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও এনএপিডি’র মহাপরিচালকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও বিশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। শরাফত ইবনে মোল্লা মোশাররফ, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট কনসালটেন্ট মিটিং ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যারের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে তথ্যবহুল উপস্থাপন প্রদান করেন। তিনি প্রকল্পের বিভিন্ন মডিউলের আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্যসমূহ উপস্থাপনায় তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে ইআরপি সফটওয়্যার প্রকল্পের সাথে জড়িত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি জানান যে, ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য আগামী প্রজন্মকে প্রস্তুত করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব আহমেদ ওয়াজেদ জয়ের দিকনির্দেশনা এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলকের সুযোগ্য নেতৃত্বে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। ইআরপি প্রকল্প সরকারি দপ্তরের কার্যক্রম অটোমেশনের আওতায় নিয়ে এসে সরকারের “ডিজিটাল বাংলাদেশ” বাস্তবায়নে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি প্রকল্পের কার্যক্রম আরও বেগবান করার জন্য সংশ্লিস্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

সভাপতি তাঁর বক্তব্যে ইআরপি সফটওয়্যারের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং এনএপিডি’তে বিভিন্ন মডিউল বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। বাংলাদেশ ই-গভর্নমেন্ট ইআরপি প্রকল্প সরকারি অফিসসমূহের অটোমেশনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সর্বোচ্চ আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল ও এনএপিডি’র বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়া, প্রকল্পের পরামর্শকবৃন্দ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিবৃন্দ এবং সফটওয়্যার উন্নয়নকারী প্রতিষ্ঠান সিনেসিস আইটি লি. এর কর্মকর্তাবৃন্দ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

-শিশির

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter