ঘুম কখনো কম কখনো বেশি কেন হয়

বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তিঃ

চাঁদের সাইকেল বা চন্দ্রচক্রের কারণে শুধু জোয়ার-ভাটাই নয় ঘুমের ওপরও প্রভাব পড়ে।

বুধবার সায়েন্স অ্যাডভান্সেসে প্রকাশিত এক গবেষণায় এমন তথ্য উঠে এসেছে। বৃহস্পতিবার রাতে বছরের প্রথম পূর্ণিমা।

গবেষণায় দেখা গেছে, পূর্ণিমার আগে মানুষজন দেরি করে ঘুমাতে যায় এবং কম ঘুমায়। খবর সিএনএনের।

গবেষণায় অংশ নেয়া ব্যক্তিরা পূর্ণিমার আগে রাতে গড়ে ৩০ মিনিট দেরি করে ঘুমাতে গিয়েছেন। পূর্ণিমার আগের রাতগুলোতে ৫০ মিনিট কম ঘুমিয়েছে।

এই গবেষণা সহ-লেখক সিয়াটলের ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োলজি বিভাগের অধ্যাপক হোরাসিও দি লা ইগলেসিয়া এ কথা বলেছেন।

গবেষকরা ঘুমের ওপর চাঁদের প্রভাব খতিয়ে দেখতে গবেষণায় অংশ নেয়া প্রত্যেক ব্যক্তির কবজিতে একটি স্লিপ মনিটর লাগিয়ে দেন।

এসময় তারা এক থেকে দুটি চন্দ্রচক্র ধরে ওই ব্যক্তিদের মনিটর করেন। একটি চন্দ্রচক্র পূর্ণ হতে ২৯.৫ দিন লাগে।

এই গবেষণায় মোট ৯৮ জন অংশ নেন। তারা সবাই টোবা আদিবাসীর তিনটি ভিন্ন কমিউনিটির সদস্য। এই আদিবাসীর মানুষজন কোম পিপল নামেও পরিচিত।

আর্জেন্টিনায় এই গবেষণা চালানো হয়। ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োলজি বিভাগের পোস্ট ডক্টরাল স্কলার এবং এই গবেষণার সহ-লেখক লেনার্দো কাসিরাগি বলেছেন, পূর্ণিমার আগের রাতগুলোতে সূর্যাস্তের পর চাঁদের আলো বেশি উজ্জ্বল হয়।

গবেষণায় অংশ নেয়া তিন কমিউনিটির একদল বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন ছিল, একদলের কিছু অংশের মানুষের কাছে বিদ্যুৎ ছিল এবং একদল মানুষের কাছে পুরোপুরি বিদ্যুৎ সুবিধা ছিল।

তবে পূর্ণিমার আগের রাতগুলোতে এই তিন কমিউনিটির সবাই দেরি করে ঘুমাতে গেছে এবং কম ঘুমিয়েছে।

-ডিকে

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter