জেলখানায় কেমন ঈদ করলেন সাবরিনা পাপিয়ারা

মিলি সুলতানাঃ

করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভুয়া প্রতিবেদন দেওয়ার ঘটনায় অপরাধী জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের চিকিৎসক ডাঃ সাবরিনা কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারে ঈদ কাটিয়েছে। একই কারাগারের বিশেষ সেলে রাখা হয়েছে বহুমুখী অপকর্মের সর্দারনী শামীমা নূর পাপিয়াকে।

কারাগারের জেলার মোঃ আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, অন্যান্য কারাবন্দীদের মত সাবরিনা ও পাপিয়াকে ঈদের দিন বিশেষ খাবারে আপ্যায়িত করা হয়েছে। সকালে পায়েস ও মুড়ি খেতে দেয়া হয়েছে। দুপুরের মেন্যুতে ছিলো সাদা ভাত, ডিম ও আলুর দম। রাতে খেতে দেয়া হয়েছে বাসমতি চালের পোলাও ঝাল মাংস, ডিম, বিভিন্ন মিষ্টান্ন, দই, সালাদ, কোল্ড ড্রিংকস ও পান সুপারিও খেতে দেয়া হয়েছে।

ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে ৪০ জন নারী বন্দিকে শাড়ি উপহার দেওয়া হয়েছে। তবে সাবরিনা পাপিয়া দুজনের কেউ দানকৃত কোনো শাড়ি নেয়নি। সাবরিনাকে ঈদের আগে তার পরিবার থেকে শাড়ি শাল চিরুনি রাবার ব্যান্ড ক্লিপ ক্রিম ভ্যাসেলিন আয়না দেয়া হয়েছিলো। নাম গোপন রাখার শর্তে এক কারারক্ষী জানান, সাবরিনা পাপিয়া দুজনেই ড্রিংক করে বেড়াতো। পার্টিতে হুইস্কির গ্লাসের টুংটাং শব্দ না হলে তাদের পার্টির উদ্দামতা জমতোনা। পোলাও মাংসের বদলে এই দুইজনকে মদ হুইস্কি দিলে এরা বেশি খুশি হতো।

সাবরিনা ও পাপিয়া যে কারাগারে অবস্থান করছে সেই কারাগারে একহাজার ৩৩৫ জন বন্দি রয়েছে। তাদের মধ্যে ৮৭ জন ফাঁসির আসামি। ১৭৪ জন যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত। অচিরেই সাবরিনার বিরুদ্ধে মামলার চার্জশিট দেয়া হবে।

-কেএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter