তাহসানের তামাকের বিজ্ঞাপন বন্ধের দাবি

সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জাপান ভ্রমণ ইতিহাস নিয়ে তারকা শিল্পী তাহসান খানের একটি অনুষ্ঠানের বিজ্ঞাপন প্রচারণা চলছে।

একটি অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে গণমাধ্যমে এধরনের ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা অভূতপূর্ব এবং নজিরবিহীন। এই প্রমোশনাল বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করা হয়েছে জাপান টোব্যাকোর (জেটিআই) ব্রান্ড কালার এবং স্লোগান ‘জাপানিজ কোয়ালিটি’।

জাপান টোব্যাকো তাদের ব্রান্ড প্রমোশনের ক্ষেত্রে একই কালার এবং স্লোগান ব্যবহার করে থাকে। সুতরাং নিঃসন্দেহে বলা যায় এই অনুষ্ঠানটি মূলত জাপান টোব্যাকোর ব্রান্ড প্রমোশনের জন্যই তৈরি করা হয়েছে।

জাপান টোব্যাকো বাংলাদেশের বাজারে প্রবেশের পর থেকেই আইন ভঙ্গ করে বিভিন্ন উপায়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। তাহসান খান বর্তমান সময়ের একজন জনপ্রিয় শিল্পী এবং দেশের তরুণ সমাজের একজন আইকনও বটে।

তামাক কোম্পানির অর্থায়নে তৈরি এধরনের অনুষ্ঠানে তার অংশগ্রহণ কোনোভাবেই কাম্য নয়, যা তরুণ সমাজকে তামাকপণ্যে আকৃষ্ট করতে পারে।

উল্লেখ্য, ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইনের ধারা ৫ অনুযায়ী, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কোনো তামাকজাত দ্রব্য বা তামাকের ব্যবহার প্রবর্ধনের উদ্দেশ্যে যে কোন ধরনের বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা নিষিদ্ধ এবং দণ্ডনীয় অপরাধ।

কোনো ব্যাক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠান আইনের এই বিধান লংঘন করলে অনুর্ধ্ব তিন মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড বা অনধিক এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডনীয় হবে।

‘প্রত্যাশা’ মাদক বিরোধী সংগঠনের সাধারন সম্পাদক হেলাল আহমেদ বলেন, বহৃজাতিক তামাক কোম্পানী জাপান টোব্যাকো ইন্টারন্যাশনাল (সাবেক আকিজ কোম্পানী) এর পক্ষে অভিনেতা/শিল্পী তাহসান খানকে তামাকের পক্ষে প্রচারণার ফাঁদে না পড়ার জন্য অনুরোধ জানানোর পাশাপাশি এব্যাপারে তার পক্ষ থেকে ব্যাখ্যা দাবী করা হয়।

তিনি আরো বলেন, কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে বসবাসরত বাঙ্গালীর চিন্তা ধারার একটি বৃহৎ জগৎ জুড়ে রয়েছেন। সেখানে রবীন্দ্রনাথ এবং তার প্রতি মানুষের দূর্বলতাকে পুঁজি করে তামাক কোম্পানীর বিজ্ঞাপন দেশের তরুন সমাজকে তামাকে আসক্ত এবং নতুন নতুন ধূমপায়ী সৃস্টির এক নতুন কূটকৌশল্, আনি বিধি নিষেধ এড়িয়ে এই ধরনের আগ্রাসী প্রচারণা সদ্য বাংলাদেশে তামাকের ব্যবসার অনুমতি পাওয়া জাপান টোব্যাকো’র মৃত্যূ বিপণন কার্যক্রমের অন্যতম ক’টকৌশল, জনস্বাস্থ্যেও জন্য মারাত্নক ক্ষতিকর তামাকজাত পণ্যেও সকল প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা এখনি বন্ধ করতে এবং তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন লঙ্ঘনের জন্য দেশের প্রচলিত ধূমপান ও তামাকজাতদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযায়ী তামাক কোম্পানীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য জোর দাবী জানানো হয়।
-এসএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter