নিউইয়র্ক ও প্যারিস প্রবাসীদের পাঠাতে সহায়তা করবে জিডি অ্যাসিস্ট

নিউইয়র্ক ও প্যারিস প্রবাসীদের পাঠাতে সহায়তা করবে জিডি অ্যাসিস্ট

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

প্রবাসী বাংলাদেশী এবং অভিবাসী ভিসাধারীদের জন্য ঢাকা থেকে প্যারিস এবং নিউইয়র্কের জন্য বিশেষ বিমানের ব্যবস্থা করতে সহায়তা করবে জিডি অ্যাসিস্ট

[২৭ জুন ২০২০, ঢাকা] পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সিভিল এভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশ (সিএএবি)- এর অনুমোদন ও সমর্থনে, বর্তমানে বাংলাদেশে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের জন্য ঢাকা থেকে নিউইয়র্ক এবং প্যারিসে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করছে জিডি অ্যাসিস্ট।

বিশ্বব্যাপী লকডাউনের কারণে বিশ্বের বিমান পরিবহন ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেক প্রবাসী বাংলাদেশী দেশে আটকা পড়ে যান। দেশের বৃহত্তম স্বাস্থ্যসেবা পরিচালনা সংস্থা হিসাবে জিডি অ্যাসিস্ট এই প্রবাসী বাংলাদেশীদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সুবিধার্থে সক্রিয়ভাবে চেষ্টা করে চলেছে। উদাহরণস্বরূপ, জিডি অ্যাসিস্ট মার্কিন অভিবাসী, বাংলাদেশী গ্রিন কার্ডধারী এবং অভিবাসী ভিসাধারী, যাদের জরুরিভিত্তিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের প্রয়োজন ছিল তাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সুবিধার্থে এই মাসের শুরুতে ঢাকা থেকে শিকাগো একটি বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করে।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন সাপেক্ষে, প্রবাসীদের বিদেশে তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সুবিধার উদ্যোগের ধারাবাহিকতায় জিডি অ্যাসিস্ট ঢাকা থেকে প্যারিস এবং নিউইয়র্কগামী আরও একটি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করতে চলেছে। নিউইয়র্ক এবং প্যারিসের উদ্দেশ্যে বিমানটি ৪ জুলাই ২০২০ তারিখে ঢাকা ত্যাগ করবে, যার জন্য যাত্রীদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

রেজিস্ট্রেশনের জন্য আগ্রহী প্রবাসীদের তাদের পাসপোর্ট এবং ভিসা’র কপিগুলো ই-মেইল করার জন্য অনুরোধ জানিয়ে জিডি অ্যাসিস্ট তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম পেজ ও এবং ওয়েবসাইটে একটি বিশেষ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। যে কোনও তথ্যের জন্য, আসন বুক করতে আগ্রহী ব্যক্তিরা ই-মেইল করতে পারেনঃ evac@green-delta.com, বা জিডি অ্যাসিস্টের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে লিখতে পারেনঃ https://m.me/greendeltaassist/

গ্রীন ডেল্টা ইনস্যুরেন্সের সহযোগী প্রতিষ্ঠান, জিডি অ্যাসিস্ট, বাংলাদেশের বৃহত্তম স্বাস্থ্যসেবা পরিচালনা সংস্থা। সংস্থাটি বাংলাদেশে মেডিকেল ট্যুরিজম নিয়ে কাজ করছে। গত এপ্রিল থেকে, সংস্থাটি সাফল্যের সাথে থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও ভারত থেকে প্রায় আড়াইশ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছেন, যারা কোভিড–১৯ মহামারীসৃষ্ট লকডাউনের কারণে সেসব দেশে আটকা পড়েছিলেন।

-শিশির

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter