পরিবহনে দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ১১১ সুপারিশ বাস্তবায়ন করা হবে

পরিবহনে দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ১১১ সুপারিশ বাস্তবায়ন করা হবে

আইন আদালতঃ
সারাদেশের সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদার ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ১১১ দফা সুপারিশ বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

এগুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে। ২২ ডিসেম্বর, বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিরাপদ সড়ক সংক্রান্ত টাস্কফোর্সের দ্বিতীয় সভা শেষে এই তথ্য জানান তিনি।

এ বিষয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদার ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণের জন্য ১১১ দফা সুপারিশ বাস্তবায়নে গঠিত চারটি কমিটি তাদের সুপারিশ জমা দিয়েছে।

সড়কে দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ১১১ দফা সুপারিশ পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে।

তিনি আরো জানান, পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদার ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণের জন্য ১১১ সুপারিশ ছিলো। সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়। সেই টাস্কফোর্সের আজকের দ্বিতীয় সভায় সকলে তাদের সুচিন্তিত মতামত দিয়েছেন।

এর আগে প্রথম সভায় চারজন সচিবের নেতৃত্বে চারটি কমিটি করে দিয়েছিলাম কীভাবে সুপারিশগুলো বাস্তবায়ন করা যায়। তারা আজকে তাদের সুপারিশ দিয়েছেন।

মন্ত্রী আরো জানান, এই সুপারিশগুলো পর্যালোচনা ও আলোচনা করা হয়েছে। চারটি কমিটির সুপারিশের বিষয়গুলো আগামী সভায় জানানো হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরো জানান, যে প্রস্তাবগুলো আসছে সেগুলোর কোনোটা স্বল্প, কোনোটা মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদি। এগুলো নিয়ে আলোচনা করেছি। বিস্তারিতভাবে কাজ করার জন্য চারটি কমিটি রয়েছে। তারা ইতোমধ্যে কাজ শুরু করে দিয়েছে। এ পর্যন্ত যে রিপোর্ট পেয়েছি তার অনেকগুলো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আমরা বসে নেই। তবে করোনা মহামারীর জন্য ধীর গতিতে কাজ করা হচ্ছে বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ সভায় মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন, সুরক্ষা সেবা সচিব মোহাম্মদ শহিদুজ্জামান, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি মশিউর রহমান রাঙ্গা, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাজাহান খান, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কাঞ্চনসহ আরো অনেকেই ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

-ডেআর

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter