প্রচলিত প্রথা ভেঙে নারী ক্ষমতায়নে পেপারফ্লাই

প্রচলিত প্রথা ভেঙে নারী ক্ষমতায়নে পেপারফ্লাই

ব্যবসা-বাণিজ্যঃ

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপনের প্রাক্কালে “ডিভাস ব্রেকিং দ্যা বায়াস” শীর্ষক থিমে বাংলাদেশে ডোরস্টেপ ডেলিভারি সেবার পথিকৃৎ পেপারফ্লাইয়ের হেডকোয়ার্টারে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল নারীদের মিলনমেলা।

পেপারফ্লাই যাত্রাপথের শুরু থেকে সবসময় চিরাচরিত ধ্যান-ধারনা ভেঙে সামনে এগিয়ে যাওয়ায় বিশ্বাসী। আজকের এই নতুন যুগে কর্মক্ষেত্রসমূহ অধিকতর নারীবান্ধব করে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে সকল প্রতিষ্ঠানে আমূল ও বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা হচ্ছে৷

একদম শুরু থেকে পেপারফ্লাই এ মূলনীতিতে বিশ্বাসী এবং সেই লক্ষ্যে এখানে নারী ডেলিভারি কর্মকর্তাদের জন্য কাজের সুযোগ ও তৈরি করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির প্রতিটি বিভাগে পর্যাপ্ত হারে নারী প্রতিনিধিত্ব করছে। মার্কেটিং, ফিন্যান্স, হিউম্যান রিসোর্স, অ্যাডমিন, অপারেশন্স এবং আইটি- সব ক্ষেত্রেই প্রথম থেকে পেপারফ্লাইয়ের সঙ্গে আছেন অত্যন্ত দক্ষ ও সুযোগ্য নারী কর্মকর্তা ও কর্মচারী।

যে সকল নারী প্রতিনিয়ত নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন পেপারফ্লাই এর উত্তোরত্তর উন্নতির জন্য, তাদের জন্যই প্রতিষ্ঠানটির শ্রদ্ধাঞ্জলি হিসেবে এই মিলনমেলার আয়োজন করা হয়।

পেপারফ্লাইয়ের সকল “ডিভা”-রা এইদিন একত্রিত হয়েছিলেন এবং সুযোগ পেয়েছিলেন স্ব স্ব ক্ষেত্রে অত্যন্ত সফল ও সুনামধন্য নারী অতিথিদের জীবনের অনুপ্রেরণামূলক সব গল্প শোনার।

উপস্থিত সম্মানিত অতিথিবর্গের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শাহেলা ফেরদৌসী রুনা, জেরিন শামসাদ হক, ড. নুসরাত নূর তান্নী, আনিকা জাহীন, নাইমা আঞ্জুমান প্রমুখ।

এ অনুষ্ঠানে তারা তাদের জীবনে কিভাবে প্রচলিত পক্ষপাত ভেঙে সামনে এগিয়ে গেলেন সে কাহিনীগুলো সবাইকে বলেন এবং পেপারফ্লাইয়ের নারীদেরকে উদ্দীপ্ত করেছেন সেপথে।

সুপরিচিত উদ্যোক্তা শাহেলা ফেরদৌসী রুনা তাঁর অত্যন্ত প্রেরণামূলক বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, “পেশাগত বা ব্যক্তিগত দুই ক্ষেত্রেই নারীকে উদযাপন করা নারী হিসেবে একে অপরের প্রতি দায়িত্বস্বরূপ।

শুধুমাত্র গৃহস্থালি কাজ করার চিরাচরিত নিয়মের বৈষম্য প্রথা ভেঙে নারীকে এগিয়ে আসতে হবে।

ঘরের কাজ করা পুরুষ ও নারী দুইজনের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে৷” এ পর্যায়ে পেপারফ্লাইয়ের হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজার-নাসিমা আহমেদ দেশের যুগান্তকারী ডোরস্টেপ ডেলিভারি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান পেপারফ্লাইয়ের জেন্ডার সমতার ক্ষেত্রে অবস্থানের ব্যাপারে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, “পেপারফ্লাইয়ে আমাদের কোন রকম বৈষম্য ছাড়া সমান অধিকার ও স্বাধীনতা সুনিশ্চিত করা হয়। এখানে সকল নারী কর্মীরা তাদের মতামত, চিন্তাধারা ও পরিবর্তনের ব্যাপারে পরামর্শ দিতে পারেন সম্পূর্ণ স্বাধীন ভাবে।”

পেপারফ্লাই একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে সবসময়ে বৈপ্লবিক পরিবর্তন ও নতুন চিন্তাধারার পথিকৃৎ ও ধারক। সার্বিক অর্থে বলতে গেলে পেপারফ্লাই প্রচলিত পক্ষপাত ভাঙাার ক্ষেত্রে অগ্রদূত ভূমিকা পালন করে আসছে।

আজকের প্রতিযোগিতামূলক বাজারে পুরুষের সাথে সাথে নারীকে প্রবল প্রতিযোগিতা করে টিকে থাকতে হয়, এগিয়ে যেতে হয়। ব্যবসাক্ষেত্রে সাপ্লাই চেইনের সকল ঝামেলা কাঁধে তুলে নেয়ার প্রতিশ্রুতি সহকারে সর্বোচ্চ উৎসাহ যুগিয়ে পেপারফ্লাই এক্ষেত্রে সবসময় এগিয়ে এসেছে।

উৎসাহ দিয়েছে নারী উদ্যোক্তাদের ছোট পরিসরে ব্যবসা উদ্যোগ গড়ে তুলতে।

এছাড়াও পেপারফ্লাই এফ-কমার্স কেন্দ্রিক সকল ধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। যেমন- মার্চেন্টদের কাছ থেকে ডোরস্টেপ হতে পণ্য সংগ্রহ এবং ডোরস্টেপ ডেলিভারি, এক ঘন্টায় মার্চেন্ট পেমেন্ট এবং ঢাকার মধ্যে পরেরদিন ডেলিভারি প্রদান করা ইত্যাদি।

-শিশির

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter