মা,ভাই ও বোনকে গুলি করে হত্যা করেছে পাবজি কিশোর

মা,ভাই ও বোনকে গুলি করে হত্যা করেছে পাবজি কিশোর

আর্ন্তজাতিকঃ
জৈন আলী নামে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোর গুলি করে তার মা, ভাই ও দুই বোনকে হত্যা করেছে। জৈন আলী ভিডিও গেম পাবজিতে আসক্ত বলে জানা গেছে।

পরিবারের সদস্যদের লাশ উদ্ধারের পর তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত ২৮ জানুয়ারি পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের রাজধানীর পুলিশ এ তথ্য জানায়।

গত সপ্তাহে ৪৫ বছর বয়সী স্বাস্থ্যকর্মী নাহিদ মুবারাক, তার ২২ বছর বয়সী ছেলে তৈমুর এবং ১৭ ও ১১ বছর বয়সী দুই মেয়ের লাশ লাহোরের কাহনা এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ এক বিবৃতিতে জানায়, পরিবারটির একমাত্র জীবিত ও অক্ষত সদস্য ওই কিশোর তাদের হত্যা করেছে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ওই কিশোর গেমে আসক্ত হয়ে তার মা ও সহোদরদের হত্যা করেছে বলে স্বীকার করেছে। দিনের একটি দীর্ঘ সময় ধরে অনলাইন গেমটি খেলার কারণে তার কিছু মানসিক সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ জানায়, নাহিদ তালাকপ্রাপ্ত নারী। তিনি ওই কিশোরকে প্রায় সময় পড়াশোনায় মনোযোগ না দেওয়া ও অধিকাংশ সময় ধরে গেমটি খেলার জন্য বকাঝকা করতেন।

ঘটনার দিন, নাহিদ ছেলেকে এ বিষয়ে তিরস্কার করেন। পরে ওই ছেলে মায়ের পিস্তল বের করে তাকে এবং তার আরও সহোদরকে ঘুমের মধ্যে গুলি করে হত্যা করে।

পরের দিন সকালে, প্রতিবেশীরা পুলিশ ডাকলে সে জানায়, ঘটনার সময় সে বাড়ির ওপরের তলায় ছিল। সে এ বিষয়ে কিছু জানে না।

পুলিশ জানায়, লাইসেন্স করা পিস্তলটি নাহিদ তার পরিবারের নিরাপত্তার জন্য নিয়েছিলেন। পুলিশ পিস্তলটি নালা থেকে উদ্ধার করে, যেখানে এটি ওই ছেলে ফেলে দিয়েছিল।

সন্দেহভাজনের রক্তমাখা কাপড় উদ্ধার করা হয়েছে বলেও পুলিশ জানায়।

-মিলন

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter