মামিজার আশা পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্টঃ

বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন এক কিশোরীর ইচ্ছা পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার ইচ্ছা পূরণে তার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে ভিডিও কলে কথা বলেছেন তিনি।

ওই কিশোরীর নাম মামিজা রহমান রায়া। তাদের কথা বলার দুটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল ওই দুটি ছবি প্রকাশ করে। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার ইচ্ছা প্রকাশ করে ফেসবুকে ভিডিও পোস্ট করেছিলেন রায়া। আর সেই ইচ্ছায় দ্রুত সাড়া দেন প্রধানমন্ত্রী।

ওই দুটি ছবি পোস্ট করে অপু জানান, নিজের জীবনকে জনগণের জন্য উৎসর্গ করেছন, প্রতি মুহূর্ত এদেশের মানুষের স্বপ্ন সত্যি করতে চান, ইচ্ছা পূরণ করতে চান। তিনি জাতির জনকের কন্যা মানবতার বাতিঘর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। এক কিশোরী প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার আগ্রহ প্রকাশ করে সামাজিক মাধ্যমে ভিডিও পোস্ট করেছিল। প্রধানমন্ত্রী তা জানতে পেরে পরম স্নেহে কিশোরীটির সঙ্গে ভিডিও কল করে শত ব্যস্ততার মধ্যেও কথা বলেন।

এ বিষয়ে রায়ার মা নাবিহা রহমান পিংকী জানান, প্রধানমন্ত্রী ফোন দেয়ার বিষয়টি তার মেয়ে রায়া ও তার জন্য অবিশ্বাস্য ছিলো।

১৭ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় রায়ার মায়ের মোবাইল ফোনে ভিডিও কল করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নাবিহা রহমান পিংকী জানান, এই ফোন পেয়ে হতবিহ্বল হয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক আচরণে তার মনেই হয়নি তিনি সরকারপ্রধানের সঙ্গে কথা বলছেন। মনে হচ্ছিল মা বা ফুপির সঙ্গে কথা বলছি।

রায়া ভিডিও কলে প্রধানামন্ত্রীকে জাতীয় সংগীত ও একটি কবিতা আবৃত্তি করে শুনিয়েছেন বলেও জানান মা নাবিহা রহমান।

এর আগে রায়া তার ভালোবাসার কথা জানিয়ে ভিডিও পোস্ট করেছিলেন। রায়ার ভিডিও কলে তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তার শিক্ষিকা হাসিনা হাফিজ। তাতে সাড়া দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রায়াকে এই ফোন করেন।

-কেএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter