ময়মনসিংহে যুব কাউন্সির গাইডলাইন কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ময়মনসিংহে যুব কাউন্সির গাইডলাইন কর্মশালা অনুষ্ঠিত

কর্মসংস্থানঃ

তরুণদের ক্ষমতায়নের মাধ্যমে সাধারণ সেবার ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত গ্রহণে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ময়মনসিংহ নগর যুব কাউন্সিল গঠন করার উদ্দেশ্যে সিরাক-বাংলাদেশ জাতিসংঘের ইউএনডিইএফ ও ইউএনহ্যাবিটেট এর সহায়তায় একটি উদ্যোগ গ্রহন করেছে।

সে সূত্রে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নগর যুব কাউন্সিল গঠন বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন ও টাস্ক ফোর্স সদস্যদের নিয়ে নীতিমালা খসড়া প্রণয়ন বিষয়ক একটি গাইডলাইন ওয়ার্কশপ শুক্রবার (১৩ মে) ময়মনসিংহের একটি স্থানীয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন ও সিরাক-বাংলাদেশ এর যৌথভাবে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিরাক-বাংলাদেশ এর নির্বাহী পরিচালক এস এম সৈকত।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন এর মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু, অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্যানেল মেয়র-০৩ শামিমা আক্তার, ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাম্মি আক্তার মিতু, মোঃ ফারুক হাসান ও সিটি কর্পোরেশন এলাকার পঞ্চাশ জন তরুণকে নিয়ে গঠিত এক অস্থায়ী টাস্কফোর্সের নির্দেশিকা বিষয়ক গাইডলাইন ওয়ার্কশপ শুরু হয় এই সভার মাধ্যমে।

মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, ময়মনসিংহ নগরের যুব সমাজের সমস্যা চিহ্নিতকরণ ও যুগোপযোগী সমাধানকল্পে সিটি কর্পোরেশন প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা ও বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনাসমূহকে বাস্তবে রূপদান করতে তরুণদের সক্রিয় অংশগ্রহণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি এই নগর যুব কাউন্সিল গঠণে সিটি কর্পোরেশনের সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদানের প্রতিশ্রুতি দেন।

আয়োজক সংস্থা সিরাক-বাংলাদেশ এর নির্বাহী পরিচালক এস এম সৈকত জানান, প্রকল্পটির মাধ্যমে নগরের উন্নয়ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্তকরণের লক্ষ্যে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে তাদের মধ্যে থেকে প্রতিনিধি মনোনয়ন ও নির্বাচন প্রক্রিয়ায় নির্বাচিত করে তাদের কথা, মতামত ও দাবিসমূহ সিটি কর্পোরেশনের কাছে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে উপস্থাপন করবে যা টেকসই উন্নয়নের জন্য এবং তরুণদের নেতৃত্ব বিকাশের ক্ষেত্রে উপযুক্ত ভূমিকা রাখবে এবং আগামী চার বছরে তাদের (টাস্কফোর্স সদস্য) কার্যক্রম এবং কি কি দায়িত্ব পালন করতে হবে,তারা কিভাবে সিটি মেয়র দের সাথে কাজ করবে তার একটি নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

এই সকল কিছুর সংমিশ্রণে আলোচ্য নীতিমালা নিয়োগ টাস্কফোর্স সহযোগীতার তৈরি ও প্রণয় করা হবে।

এছাড়াও প্রকল্পটি জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা- ১১ ও ১৬ অর্জনে বাংলাদেশ সরকারকে সহায়তা করবে।

তারা আরো জানান, নির্দেশিকা কর্মশালা মাধ্যমে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের সাথে সম্মিলিতভাবে নগর যুব কাউন্সিলের নির্দেশিকা তৈরি, কাউন্সিল গঠন, যুব ভোটার তালিকা তৈরি এবং তালিকাভুক্ত যুবদের মধ্যে হতে নগর যুব কাউন্সিলর (প্রতিটি সিটি কর্পোরেশনে ২০ জন যুব কাউন্সিলর) নির্বাচন করা হবে।

প্রস্তাবিত এই কাউন্সিল জাতীয় ও র্আন্তজাতকি পর্যায়ে যথাক্রমে ইধহমষধফবংযটৎনধহ ণড়ঁঃয ঈড়ঁহপরষং ঘবঃড়িৎশ এবং ডড়ৎষফ টৎনধহ ণড়ঁঃয ঈড়ঁহপরষং ঘবঃড়িৎশ এর সদস্যপদ গ্রহনের মাধ্যমে স্থানীয় পর্যায়ে তরুণদের সম্পৃক্ততা ও দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করবে।

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে উপস্থিত কর্মকর্তাবৃন্দ সকলেই প্রকল্পটিকে সাধুবাদ জানান এবং সর্বপ্রকার সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে আরো অংশ নেন বাংলাদেশ এর সিরাক-বাংলাদেশ এর প্রোগ্রাম সহকারী পরিচালক (প্রোগ্রাম) মোঃ সেলিম মিয়া, অ্যাসোসিয়েট প্রোগ্রাম অফিসার নাহিদুর রাহমান, প্রোগ্রাম অ্যাসোসিয়েট সুমাইয়া আক্তার মিলি, প্রোগ্রাম অ্যাসোসিয়েট অপূর্ব রয়, ও টাস্কফোর্স সদস্যগণ।

-শিশির

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।