যে মুলা খায় না, সে জানে না মুলার পুষ্টিগুণ

মুলায় লুকিয়ে আছে নানা পুষ্টি!

লাইফস্টাইলঃ
মুলা এটি হালকা গন্ধবিশিষ্ট, বড়, সাদা রঙের ‘মূল’ জাতীয় সবজি। এর আদিভূমি কন্টিনেন্টাল এশিয়া।

হিন্দি ও উর্দুতে একে ‘মূলি’ বলা হয়। সেখান থেকে ইংরেজিতেও মূলি শব্দটি প্রচলিত হয়েছে। মুলা! নাম শুনেই অনেকে চোখ কুঁচকান। অনেকেই মুলা খেতে চান না।

কিন্তু মুলায় মেলে নানা উপকার। তরকারি হিসেবে বা সালাদে নানাভাবে মুলা খাওয়া যায়। পুষ্টিবিদেরা বলেন, মুলার মেলা পুষ্টিগুণ।

যকৃৎ ও পাকস্থলী পরিষ্কারে মুলার জুড়ি মেলা ভার। নিয়মিত তাই খাবার টেবিলে মুলা রাখতেই পারেন। হার্টের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবারের তালিকায় আছে গাজর, পেঁয়াজ ও ব্রুকোলির নাম।

এবার এ তালিকায় যুক্ত হল আরেকটি নাম, মুলা। গবেষকরা জানিয়েছেন, অতিকায় মুলা হার্টের রোগ ও স্ট্রোক সারাতে ভূমিকা রাখতে পারে।

জাপানের কাগোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক কাটসুকো কাজিয়া বলেন, অতিকায় মূলার মধ্যে থাকা উপাদানগুলি করনারি ব্লাড ভেসেল রক্ষা করতে সাহায্য করে।

এছাড়া, হৃদরোগ ও স্ট্রোকের প্রবণতাকেও অনেকাংশে হ্রাস করে। কয়েক শতাব্দী ধরে জাপানের মাটিতে উৎপন্ন হয়ে চলেছে এই ‘মনস্টার মুলা’।

অনেক সময় রক্ত জমাট বেঁধে যায়, ফলে নানা শারীরিক জটিলতার মুখোমুখি হন সাধারণ মানুষ। মুলাতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের পরিমাণ থাকে যথেষ্ট বেশি যা কমায় উচ্চ রক্তচাপকে।

অন্যান্য মুলার থেকে বড় আকারের মুলার মধ্যে থাকা উপাদান গুলিই হার্টের অসুখের জন্য সর্বাধিক কার্যকরী।

যেহেতু গবেষনায় জানা গেছে মুলার গুণাগুণ, তাই অবশ্যই আপনি আপনার হার্টের সুরক্ষায় ও স্ট্রোক সারাতে মুলা খেতে পারেন।

-টিপু

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter