লাল তীর সিড ও এনএসটিই‘র মধ্যে চুক্তি সম্পাদন

লাল তীর সিড ও এনএসটিই‘র মধ্যে চুক্তি সম্পাদন

ব্যবসা-বাণিজ্যঃ
জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে বাংলাদেশকে টিকিয়ে রাখতে পারস্পরিক জ্ঞান বিনিময়ের অঙ্গীকারে ১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত এবং বেসরকারি খাতে বাংলাদেশে সর্বপ্রথম আইএসও ৯০০১:২০১৫ সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান লাল তীর সিড লি:, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (এনএসটিইউ) এর সাথে একটি সমঝোতা স্মারক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

রাজধানীর গুলশানে হোটেল ওয়েস্টিন এ চুক্তি স্বাক্ষর সম্পাদিত হয়।

এই দুটি প্রতিষ্ঠান পাস্পরিক জ্ঞান বিনিময়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের ফসলের সর্বোৎকৃষ্ট জাত চিহ্নিত ও উন্নতিকরণ এবং বর্তমান ও ভবিষ্যতের জন্য সম্ভাবনাময় কৃষি উৎপাদন প্রক্রিয়া বিকাশের প্রচেষ্টা চালাবে। এই প্রচেষ্টার ফলস্বরূপ বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন সহ অন্যান্য দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষম হয়ে উঠবে।

এই চুক্তির আওতায় লাল তীর সিড এবং এনএসটিইউ একে অপরের গবেষণার সুযোগ-সুবিধা ও সরঞ্জামাদি ব্যবহার করতে পারবে।

এছাড়াও থিসিস-গবেষণা, ‘অন-ফার্ম ট্রায়াল-এর মতো সমন্বিত উদ্যোগুলোও গ্রহণ করবে। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের জ্ঞান এবং পেশাদারি দক্ষতা উন্নয়নেও সহায়তা করবে।

লাল তীর সিড লিমিটেড-এর চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু এবং এনএসটিইউ-এর উপাচার্য প্রফেসর ড: মো: দিদার-উল-আলম চুক্তির নথিতে স্বাক্ষর ও চুক্তি বিনিময় করেছেন।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়তে গবেষণার মাধ্যমে যে উন্নত জ্ঞান অর্জিত হয়েছে তা আয়ত্ত করার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে মিন্টু বলেন, “উত্তাল সমুদ্রপৃষ্ঠের পাদদেশে অবস্থতি বাংলাদেশ সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ একটি দেশ।

বিগত দশ বছরের গবেষণা আমাদেরকে সেই হুমকির জন্য প্রস্তুত করেছে। তবে এটি আত্মস্থ করার জন্য আমাদের পারস্পরিক সহযোগিতা এবং একাডেমিক সেক্টরে গবেষণা করার প্রয়োজন রয়েছে, যা মূলত গবেষণা ক্ষেত্রের উন্নয়নের পাশাপাশি আমাদের শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বিকাশেও সহায়তা করবে।”

পুষ্টিগুণ বিশ্লেষণের প্রয়োজনীয়তা এবং এ বিষয়ে জনগণের মাঝে সচেতনতার বিষয়টি তুলে ধরে এনএসটিইউ উপাচার্য বলেন, “এই ধরনের গবেষণার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক হল পচনশীল খাদ্যদ্রব্য যেমন, শাকসবজি বা ফলমূল জাতীয় খাবারের পুষ্টিগুণ অক্ষুণ্ণ রাখা। আমাদের সমন্বিত গবেষণা জনগণকে উৎপাদিত ফসলের গুণগতমান সম্পর্কে সচেতন হতে সহায়তা করবে।”

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে লাল তীর সিড লিমিটেড-এর পরিচালক তাজওয়ার এম আউয়াল; ডা: ফিরোজ শাহ সিকদার; ডা: এম আবদুর রশিদ; মো: ইশতিয়াক আলম; মো: রাফায়েত আলম; ডা: সেলিনা সুলতানা এবং গবেষণা টিমের পাশাপাশি ডা: গাজী মো: মহসিন সহ এনএসটিইউ কৃষি বিভাগের অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান প্রফেসর ড: নেওয়াজ মো: বাহাদুর; ডা: মো: আতিকুর রহমান এবং আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

-শিশির

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter