শিশির মোজাম্মেলঃ

আগামী মার্চে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-চ্যানেল আই অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ডের ৮ম আয়োজন শেষ হতে যাচ্ছে। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড – চ্যানেল আই অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ড আমাদের দেশের কৃষি শিল্পের জন্য একটি মর্যাদাপূর্ণ আয়োজন।

২০১৪ সাল থেকে কৃষিখাতে স্বপ্নদর্শী এবং উদ্ভাবক উদ্যোগীদের খুঁজে বের করা এবং তাদের প্রাপ্য স্বীকৃতি দেওয়ার লক্ষ্যে এ আয়োজন করা হয়।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ ও চ্যানেল আই-এর যৌথ উদ্যোগে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড- চ্যানেল আই অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ড ২০২২, সিজন এইটের কার্যক্রম শুরু হয় ২০২২ সালের আগস্ট মাস থেকে।

এ বছর ১০টি ক্যাটাগরিতে ৪৯৩ টি আবেদন জমা পড়ে। একটি গবেষণা সংস্থা আবেদনপত্রগুলো থেকে যাচাই-বাছাই করে জুরী বোর্ডের সামনে একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা তুলে ধরেন।

চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজের সভাপতিত্বে জুরী বোর্ডে সদস্য হিসেবে ছিলেন ড. আতিউর রহমান, সাবেক গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক; ড. লুৎফুল হাসান, উপাচার্য, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়; ড. মো. শাজাহান কবির, মহাপরিচালক, বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি); এবং জাকিয়া নাজনীন, ন্যাশনাল জেন্ডার অ্যান্ড স্যোশিও ইকোনমিক এনালিস্ট, এফএও, বাংলাদেশ। এছাড়াও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসের এজাজ বিজয়, হেড অব কর্পোরেট অ্যাফেয়ারস এবং ব্র্যান্ড অ্যান্ড মার্কেটিং বিটপী দাস চৌধুরী, প্রকল্প পরিচালক শহীদুল আলম সাচ্চু উপস্থিত ছিলেন।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসের এজাজ বিজয় বলেন, তিন বেলা আমাদের খাবার টেবিলের খাদ্যের যোগান দিচ্ছেন আমাদের কৃষক। এর পেছনে কৃষিবিদ থেকে শুরু করে নানা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কৃতিত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে।

চ্যানেল আই-অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ড সেইসব ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে স্বীকৃতি প্রদানের মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন ব্যবস্থাকে আরো গতিশীল করতে চায়। এই মহৎ উদ্যোগে চ্যানেল আইয়ের মতো প্রতিষ্ঠানকে পাশে পেয়ে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড গর্বিত।

চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ বলেন, কৃষক ও কৃষিকে ঘিরে যারা সম্ভাবনার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন আমরা তাদের আলোয় আলোকিত করতে চাই পুরো বাংলাদেশকে।

কৃষি বিবর্তনের ধারাকে সংহত করতে, টেকসই উন্নয়নের দিকে ধাবিত করতে যুক্ত রাখতে চাই নতুন প্রজন্মকে। স্ট্যার্ন্ডার্ড চার্টার্ডের সঙ্গে এ কার্যক্রমে অংশ নিতে পেরে চ্যানেল আই সত্যিই আনন্দিত।

জুরী বোর্ডের সদস্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, পুরস্কারপ্রাপ্তদের বেছে নিতে আমরা নানা মাত্রায় পর্যালোচনা করেছি।

বর্তমানে আমাদের কৃষিক্ষেত্রে যে বিপ্লব ঘটছে তাতে যারা এ বছর পুরষ্কৃত হবেন তাদের উল্লেখযোগ্য অবদান আছে।”

দেশে ১১৮ বছরের নিরবচ্ছিন্ন উপস্থিতির সাথে, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ দেশের একমাত্র বহুজাতিক সার্বজনীন ব্যাংক। বাংলাদেশে অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের জন্য ব্যাংকের প্রতিশ্রুতি ইক্যুইটির নীতিকে কেন্দ্র করে আবর্তিত।

আগামী মার্চে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-চ্যানেল আই অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ডের ৮ম আয়োজন শেষ হতে যাচ্ছে। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড – চ্যানেল আই অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ড আমাদের দেশের কৃষি শিল্পের জন্য একটি মর্যাদাপূর্ণ আয়োজন।

২০১৪ সাল থেকে কৃষিখাতে স্বপ্নদর্শী এবং উদ্ভাবক উদ্যোগীদের খুঁজে বের করা এবং তাদের প্রাপ্য স্বীকৃতি দেওয়ার লক্ষ্যে এ আয়োজন করা হয়।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ ও চ্যানেল আই-এর যৌথ উদ্যোগে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড- চ্যানেল আই অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ড ২০২২, সিজন এইটের কার্যক্রম শুরু হয় ২০২২ সালের আগস্ট মাস থেকে। এ বছর ১০টি ক্যাটাগরিতে ৪৯৩ টি আবেদন জমা পড়ে। একটি গবেষণা সংস্থা আবেদনপত্রগুলো থেকে যাচাই-বাছাই করে জুরী বোর্ডের সামনে একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা তুলে ধরেন।

চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজের সভাপতিত্বে জুরী বোর্ডে সদস্য হিসেবে ছিলেন ড. আতিউর রহমান, সাবেক গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক; ড. লুৎফুল হাসান, উপাচার্য, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়; ড. মো. শাজাহান কবির, মহাপরিচালক, বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি); এবং জাকিয়া নাজনীন, ন্যাশনাল জেন্ডার অ্যান্ড স্যোশিও ইকোনমিক এনালিস্ট, এফএও, বাংলাদেশ।

এছাড়াও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসের এজাজ বিজয়, হেড অব কর্পোরেট অ্যাফেয়ারস এবং ব্র্যান্ড অ্যান্ড মার্কেটিং বিটপী দাস চৌধুরী, প্রকল্প পরিচালক শহীদুল আলম সাচ্চু উপস্থিত ছিলেন।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসের এজাজ বিজয় বলেন, তিন বেলা আমাদের খাবার টেবিলের খাদ্যের যোগান দিচ্ছেন আমাদের কৃষক। এর পেছনে কৃষিবিদ থেকে শুরু করে নানা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কৃতিত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে।

চ্যানেল আই-অ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ড সেইসব ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে স্বীকৃতি প্রদানের মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন ব্যবস্থাকে আরো গতিশীল করতে চায়। এই মহৎ উদ্যোগে চ্যানেল আইয়ের মতো প্রতিষ্ঠানকে পাশে পেয়ে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড গর্বিত।

চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ বলেন, কৃষক ও কৃষিকে ঘিরে যারা সম্ভাবনার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন আমরা তাদের আলোয় আলোকিত করতে চাই পুরো বাংলাদেশকে।

কৃষি বিবর্তনের ধারাকে সংহত করতে, টেকসই উন্নয়নের দিকে ধাবিত করতে যুক্ত রাখতে চাই নতুন প্রজন্মকে। স্ট্যার্ন্ডার্ড চার্টার্ডের সঙ্গে এ কার্যক্রমে অংশ নিতে পেরে চ্যানেল আই সত্যিই আনন্দিত।

জুরী বোর্ডের সদস্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, পুরস্কারপ্রাপ্তদের বেছে নিতে আমরা নানা মাত্রায় পর্যালোচনা করেছি। বর্তমানে আমাদের কৃষিক্ষেত্রে যে বিপ্লব ঘটছে তাতে যারা এ বছর পুরষ্কৃত হবেন তাদের উল্লেখযোগ্য অবদান আছে।”

দেশে ১১৮ বছরের নিরবচ্ছিন্ন উপস্থিতির সাথে, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ দেশের একমাত্র বহুজাতিক সার্বজনীন ব্যাংক।

বাংলাদেশে অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের জন্য ব্যাংকের প্রতিশ্রুতি ইক্যুইটির নীতিকে কেন্দ্র করে আবর্তিত।

-শিশির

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter