২৪ ঘন্টায় রাজশাহী মেডিকেলে মারা গেছেন ১৬ জন

২৪ ঘন্টায় রাজশাহী মেডিকেলে মারা গেছেন ১৬ জন

সারাদেশঃ
রাজধানীতে বরোনার ভয়াবহতা একসময় ভাবিয়ে তুলেছিলো। এই ভয়াবহতা এখন রাজধানীতেই সীমাবদ্ধ নেই। এরই ধারাবাহিকতায়দেশব্যাপী ছড়িয়ে চলেছে তার ছোবল।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) করোনা ও করোনার উপসর্গ নিয়ে ১৬ জন মারা গেছেন।

মঙ্গলবার (২২ জুন) সকাল ৮টা থেকে বুধবার (২৩ জুন) সকাল ৮টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে তাদের মৃত্যু হয়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, যে ১৬ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে আটজন করোনায় এবং আটজন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

এরমধ্যে রাজশাহীর ৮, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩, নাটোরের ২, নওগাঁ ২, ও ঝিনাইদহ একজন বাসিন্দা। করোনা সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে এসেছিলেন তারা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের দুই ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৫৭ জনের আর করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫১ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৩.০৪ শতাংশ।

হাসপাতাল সূত্রে আরও জানা যায়, ৩০৯ শয্যার রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মঙ্গলবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি রয়েছে ৪১০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছেন ৬০ জন। আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ১৯ জন।

এদিকে জেলা প্রশাসনের ঘোষণা অনুযায়ী আজ ১৩তম দিনের মতো চলছে রাজশাহী মহানগরীতে সর্বাত্মক লকডাউন। এ সর্বাত্মক লকডাউন দ্বিতীয় দফায় ২৪ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এর আগে প্রথম দফায় ১৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত লকডাউন ছিল।

সর্বাত্মক লকডাউন পরিস্থিতি সবসময় অবলোকন করছেন প্রশাসন। কিন্তু রাজশাহী নগরীর মানুষ লকডাউন মানলেও আর্থিক প্রতিষ্ঠান অর্থাৎ ব্যাংক-বীমা, কাঁচাবাজার খোলা রাখা ও আম পরিবহন ও বিপণনের জন্য বেশ কিছু মানুষকে বিভিন্ন সময়ে বাইরে চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে।

পুলিশ প্রশাসন এ ব্যাপারে বেশ সতর্ক দৃষ্টি রেখেছেন। তারা লকডাউনে বাইরে চলাচলকারীদের পথ রোধ করছেন এবং সন্তোষজনক উত্তর পেলেই তাদের গন্তব্যে যেতে দিচ্ছেন। এ সর্বাত্মক লকডাউনে আমসহ কৃষিজাত পণ্য পরিবহন ও জরুরি সেবা পরিবহন ছাড়া দূরপাল্লার বাস, স্থানীয় গণপরিবহন ও রাজশাহী রেল স্টেশন থেকে সব ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। যা কিনা আগামী ২৪ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

-কেএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter