আইপিডিসি ও এনরুট ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের চুক্তি স্বাক্ষর

অনলাইন ডেস্কঃ

বাংলাদেশের প্রথম বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড, এএমএল এবং সিএফটি বিষয়ে ই-লার্নিং কোর্সের জন্য সম্প্রতি, এনরুট ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড-এর সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে, যেটি বাংলাদেশে এই প্রথম।

আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর এমডি এবং সিইও মমিনুল ইসলাম এবং এনরুট ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড-এর এমডি এবং সিইও আবু দাউদ খান উভয় প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

এনরুট এর একটি উদ্যোগ সুদক্ষ, যেটি ‘অর্থপাচার এবং সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন রোধে’ বাংলায় দেশের প্রথম বিশেষায়িত ই-লার্নিং কোর্স। এই মহতি উদ্যোগের কি স্ট্র্যাটেজি এবং নলেজ পার্টনার হিসেবে কাজ করছে আইপিডিসি ফাইন্যান্স। দেশের শীর্ষ এনবিএফআই আইপিডিসি ফাইন্যান্স, সুদক্ষ-এর সাথে এএমএল এবং সিএফটি বিষয়ে ই-লার্নিং কোর্স এই প্রথম কাজ করছে। ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা উন্নয়নে সুদক্ষ একটি শক্তিশালী ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম।

২০১৭ সালে সিএএমএলসিও সম্মেলনে, বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক স্থাপিত বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) এবং সকল এনবিএফআই একটি সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে, কেবল এএমএল/সিএফটি নীতিমালা, কর্মপদ্ধতির নিয়মিত হালনাগাদই নয়, বরং ই-লার্নিং এরও উদ্যোগ নিতে হবে। দেশের প্রথম সারির প্রতিষ্ঠানসমূহের শীর্ষ গবেষক, ইন্ডাস্ট্রি বিশেষজ্ঞ, বিষয়ভিত্তিক বিশেষজ্ঞ, একাডেমিশিয়ানের সাথে কয়েকমাস আলোচনার পর বিএফআইইউ গাইডলাইন এবং স্থানীয় প্রেক্ষাপটের উদাহরণসহ কেস স্টাডিস সমূহকে অর্šÍভুক্ত করে এএমএল এবং সিএফটি বিষয়ে একটি বিশেষ ই-লার্নিং কোর্স নিয়ে আসা হয়েছে। সুদক্ষ পরিচালিত গুরুত্বপূর্ণ এই কোর্সের সহযোগিতায় আইপিডিসি ফাইন্যান্স দেশের প্রথম এনবিএফআই।

চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর সিওও এন্ড সিএএমএলসিও শাহ ওয়ারেফ হোসাইন, এনরুট ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড-এর মার্কেটিং ডিরেক্টর শওকত আলী মিয়া এবং বিজনেস ডেভেলপমেন্ট জেনারেল ম্যানেজার হাবিবা ইয়াসমিন।

আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর এমডি এবং সিইও মমিনুল ইসলাম বলেন, ‘প্রতিটি জাতীয় বিষয়ের মতোই, আমরা বিশ্বাস করি এটি আমাদের দায়ীত্বশীল এবং জবাবদিহী করে। তাই, আইপিডিসি ফাইন্যান্সে আমরা, এই কোর্স বাস্তবায়নে সুদক্ষকে সহযোগিতার জন্য স্বেচ্ছায় সুযোগ গ্রহণ করেছি। এটি বিভিন্ন ধরনের ফৌজদারি অপরাধ, ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা, রিপোর্টিং এবং নিয়ন্ত্রক সংস্থার ভূমিকাগুলো চিহ্নিত করার প্রক্রিয়াটি বুঝতে সাহায্য করবে যাতে, এএমএল এবং সিএফটি-এরও বিভিন্ন দিকও রয়েছে’।

এসএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *