ভূটানের ভাবী প্রধানমন্ত্রী ময়মনসিংহ মেডিকেলের ছাত্র!

অনলাইন ডেস্কঃ

ডা. লোটে শেরিং। এমবিবিএস পাস করেন বাংলাদেশের ময়মনসিংহ মেকিকেল কলেজ থেকে। এরপর জেনারেল সার্জারি বিষয়ে করেন এফসিপিএস। ২০১৩ সালে সিভিল সার্ভিস থেকে অব্যাহতি নিয়ে রাজনীতিতে যোগ দেন তিনি।

বলছিলাম ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হতে যাওয়া ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ১৮ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ডা. লোটে শেরিং-এর কথা।

ডা. লোটে শেরিংয়ের প্রোফাইলে শিক্ষাগত যোগ্যতার স্থানে লেখা এমবিবিএস ঢাকা ইউনিভার্সিটি, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত। এছাড়া প্রোফাইলে দেখা যায় তিনি রাজনীতিতে আসার আগে জেডিডব্লিউএনআরএইচ অ্যান্ড মঙ্গার রিজিওনাল রেফারেল হসপিটালে কনসালট্যান্ট সার্জন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এমনকি ডিডব্লিউএনআরএইচে ইউরোলজিস্ট কনসালট্যান্ট হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৫ সেপ্টেম্বর ভুটানে অনুষ্ঠিত প্রথম দফা নির্বাচনে তার ডিএনটি দল জয়লাভ করে চমক সৃষ্টি করে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে প্রথম দফা নির্বাচনে হেরে ছিটকে পড়েন। অবশ্য তিনি পরাজয় মেনে নিয়েছেন। ডা. লোটে শেরিং প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চূড়ান্ত ফলাফল জানা যাবে ১৮ অক্টোবর।

জানা যায়, ভুটানে দুই দফায় ভোট হয়। প্রথম দফায় ভোটাররা রাজনৈতিক দলগুলোকে ভোট দেয়। দ্বিতীয় দফায় অর্থাৎ ডা. লোটে শেরিং মুখোমুখি হবেন ডিপিটির ফেনসাম সগবার। কিন্তু ইতোমধ্যে বিপুল ভোটে ডা. লোটে শেরিংয়ের ডিএনটি জয়ী হয়েছে।

-আরবি