ইন্টারপোল প্রধান ’মেং হংওয়েই’ চীনে আটক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

ইন্টারপোল প্রধান মেং হংওয়েইকে আটকে রাখার বিষয়টি স্বীকার করেছে চীন।

এরই মধ্যে রোববার মেংয়ের পক্ষ থেকে পদত্যাগপত্র পাওয়ার কথা জানিয়েছে ইন্টারপোল। সেটি তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর  হয়েছে।

বেইজিং জানিয়েছে, আইন ভঙ্গের অভিযোগে চীনের দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ‘ন্যাশনাল সুপারভিশন কমিশন’-এর তদন্তের  খাতিরে তাকে আটকে রাখা হয়েছে। তবে আইন ভঙ্গের বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

ন্যাশনাল সুপারভিশন কমিশন মূলত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতির অভিযোগগুলো নিয়ে কাজ করে।

নিজস্ব ওয়েবসাইটে এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, মেংয়ের বিরুদ্ধে একটি দুর্নীতির মামলার তদন্ত চলছে।

ইন্টারপোলের সদর দপ্তর ফ্রান্সের লিঁও শহরে পরিবারের সঙ্গে বসবাস করে আসছিলেন ৬৪ বছর বয়সী ইন্টারপোল প্রধান মেং হংওয়েই। তার নিখোঁজের বিষয়টি সর্বপ্রথম আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীদের জানান তার স্ত্রী।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর মেং চীনের উদ্দেশ্য রওনা হন। এরপর থেকেই তার সঙ্গে পরিবারের যোগাযোগ বিছিন্ন। এমনকি তিনি কোথায় আছেন এটাও জানতে পারেনি তার পরিবার।

মেং হংওয়েই ২০১৬ সালে ইন্টারপোলের প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হন। ২০২০ সালে ইন্টারপোলে তার দায়িত্ব শেষে হওয়ার কথা রয়েছে।

ইন্টারপোল প্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের আগে তিনি চীনের জননিরাপত্তা বিভাগের উপমন্ত্রী এবং তার আগে কাউন্টার টেররিজম অফিসের কন্ট্রোল কমিশন ও কোস্ট গার্ডের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এখনো তিনি উপমন্ত্রী পদে বহাল আছেন।

মেং হংওয়েইয়ের অন্তর্ধান চীনের হাই-প্রোফাইল ব্যক্তিদের নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাগুলোর মধ্যে সর্বশেষ উদাহরণ।

গত কয়েক মাসে বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা, কোটিপতি, এমনকি একজন জনপ্রিয় তারকাও নিখোঁজ হয়েছেন।

আরবি