জবালে নূর মালিকসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে বিচার শুরু

অনলাইন রিপোর্টঃ

কুর্মিটোলায় বাসচাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় মামলায় ঘাতক জাবালে নূর পরিবহনের মালিক শাহাদাত হোসেনসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত।

আর এর মধ্য দিয়ে আলোচিত মামলাটির বিচার শুরু হলো।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ইমরুল কায়েস এ অভিযোগ গঠন করেন।

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি তাপস কুমার পাল জানান, আজ এ মামলায় অভিযোগ গঠনের জন্য দিন ধার্য ছিল।

জাবালে নূরের মালিক শাহাদাত হোসেনসহ চারজনকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। আসামিরা অভিযোগ গঠনের সময় নিজেদের নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার প্রার্থনা করেন। আগামী ধার্য তারিখে সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে একই বিচারক গত ২২ অক্টোবর এ মামলায় জাবালে নূর পরিবহনের মালিক শাহাদাতসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করে আজ অভিযোগ গঠনের দিন ধার্য করেন। এ ছাড়া ওই দিন জাবালে নূর বাসের মালিক মো. শাহাদাত হোসেন আকন্দ ও চালক মো. জোবায়ের সুমনের পক্ষে তাঁর আইনজীবীরা জামিন আবেদন করলে বিচারক তা নাকচ করেন।

মামলায় অন্য আসামিরা হলেন জাবালে নূরের আরেকটি বাসের মালিক জাহাঙ্গীর আলম, বাসের চালক মাসুম বিল্লাহ ও জুবায়ের সুমন এবং দুই চালকের দুই সহকারী এনায়েত হোসেন ও কাজী আসাদ।

৬ সেপ্টেম্বর ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের পরিদর্শক কাজী শরিফুল ইসলাম এ মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

গত ২৯ জুলাই দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজের সামনে রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান ফ্লাইওভারের শেষ প্রান্তে জাবালে নূর পরিবহনের দুই বাসচালকের রেষারেষিতে প্রাণ হারায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী। তারা হলো শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম।

এ ঘটনায় ওই দিনই রাতে নিহত শিক্ষার্থী শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মিমের বাবা জাহাঙ্গীর আলম ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

-আরবি