‘উদ্যোগে অগ্রগামী, উচ্ছ্বাসে একত্রে’ স্লোগানে আইপিডিসি উদ্যোক্তা সামিট অনুষ্ঠিত

অনলাইনঃ

  ১৯৮১ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের প্রথমবেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড, এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন)-এর উদ্যোক্তাকার্যক্রম ‘চাকরি খুঁজব না, চাকরিদেব’-এর সহযোগিতায় দেশে প্রথমবারের মতো দুই দিনব্যাপী একটি উদ্যোক্তা সম্মেলনআয়োজন করেছে।

রাজধানীর ফার্মগেইটে অবস্থিত এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিতসম্মেলনটি শেষ হবে শনিবার। এবারের স্লোগান ‘উদ্যোগে অগ্রগামী, উচ্ছ্বাসে একত্রে’।

‘আইপিডিসি উদ্যোক্তা সামিট ২০১৮’-এর আলোচ্য বিষয়সমূহ হলো- উদ্যোগে ভিন্নতা, সফল উদ্যোগের কৌশল, ক্ষুদ্র পরিসরে স্টার্ট-আপ, উদ্যোক্তা উন্নয়ন, ব্যর্থতা থেকে শেখা, উদ্যোক্তাদের জন্য চ্যালেঞ্জ ও সমাধান। সম্মেলনে সেমিনার, আলোচনা, কর্মশালা, পিচিং সেশনে ও নেটওয়ার্কিং ইভেন্টের মাধ্যমে জ্ঞান বিনিময়, প্রশিক্ষণ, নেটওয়ার্কিং, ম্যাচ মেকিং, পণ্য ও সেবা প্রদর্শনী বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়। সম্মেলনে সারাদেশ থেকে পাঁচ শতাধিক উদ্যোক্তা অংশ নিচ্ছেন, যাতে ১০টি সেশনও ৪টি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবং ৪৫টি স্টলে বাহারি পণ্য প্রদর্শনী হচ্ছে। এতে অংশগ্রহণকারীরা উদ্যোক্তা শিল্প, সমসাময়িক ধারা ও চ্যালেঞ্জ এবং এর বর্তমান ও ভবিষ্যৎ বাজার-সম্ভাবনা সম্পর্কে ভালো ধারণা নেওয়া ও সম্ভাব্য সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে সচেতন হতে পারছেন।

সম্মেলন উদ্বোধন করেন এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড জামিলুর রেজা চৌধুরী। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথোরিটি (বিআইডিএ)-এর এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান কাজী এম. আমিনুল ইসলাম এবং আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মমিনুল ইসলাম।

‘মিট দ্য লিডারস’ সেশনে বক্তব্য রাখেন আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মমিনুল ইসলাম এবং ডিএমডি ও হেড অব বিজনেস ফাইন্যান্স রিজওয়ান ডি শামস। আইপিডিসি’র ওমেন এন্টারপ্রেনার বিভাগের ইন-চার্জ খাদিজা মরিয়ম শুধুমাত্র নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বিশেষ সেশন ‘এক্সপান্ড দ্য হরাইজন’ এবং হেড অব ব্র্যান্ড এন্ড কর্পোরেট কমিউনিকেশন মাহজাবীন ফেরদৌস ‘স্টার্ট ইওর স্টার্ট-আপ’ সেশনে পেনালিস্ট হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। ‘এক্সপ্লোরিং অ্যান্ড লিভারেজিং আইসিটি’ সেশনের পেনালিস্ট হিসেবে ছিলেন আইপিডিসি’র হেড অব আইটি অ্যান্ড বিজনেস ট্রান্সফরমেশন আলেয়া আর ইকবাল। এছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের করপোরেট লিডারগণ পেনালিস্ট হিসেবে বিভিন্ন সেশনে অংশগ্রহণ করেন।  

আইপিডিসি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মমিনুল ইসলাম বলেন, “আইপিডিসি সর্বদা নতুনত্ব ও উদ্ভাবনকে উৎসাহ ও সমর্থন দিয়ে আসছে এবং আমরা নতুন উদ্যোক্তাদের সাথে আমাদের চিন্তা ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে পেরে আমরা গর্বিত। আমি এই কর্মসূচির সকল আয়োজক, বক্তা এবং উদ্যোক্তাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই, যারা এই সম্মেলন সফল করতে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন”।

আইপিডিসি’র ডিএমডি ও হেড অব বিজনেস ফাইন্যান্স রিজওয়ান ডি শামস বলেন, “উদ্যোক্তাদের বিকাশ এবং তাদের নতুন নতুন ধারণাকে ব্যবসাতে রূপ দেওয়ার মাত্রা দেখে আমি সত্যিই অভিভূত। এখানে অধিকাংশ উদ্যোক্তাই নতুন এবং ধারণার দিক থেকে এসএমই ক্ষেত্রে তারা এক একটি মূল্যবান সম্পদ”।

আইপিডিসি’র হেড অব ব্র্যান্ড এন্ড কর্পোরেট কমিউনিকেশন মাহজাবীন ফেরদৌস বলেন, “আমাদের দেশের নতুন ও তরুণ উদ্যোক্তাদের আগ্রহ ও উৎসাহ দেখে আইপিডিসি-তে একজন কমিউনিকেশন কর্মকর্তা হিসেবে আমার কর্মজীবনের শুরুর দিনগুলোকে ফিরে পাচ্ছি এবং চমৎকার এই আয়োজনের অংশ হতে পেরে আমি সত্যি আনন্দিত। নতুন উদ্যোক্তাদের উদ্দেশ্যে স্টার্টআপে আমার অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিতে পেরে এবং একটি নতুন ধারণাকে ব্যবসায়িক রূপ দেওয়ার ক্ষেত্রে যোগাযোগ কতোটা গুরুত্বপূর্ণ, তা ব্যাখ্যা করতে পেরে আমি বেশ উচ্ছ্বসিত”।

আইপিডিসি’রহেড অব আইটি অ্যান্ড বিজনেসট্রান্সফরমেশন আলেয়া আর ইকবাল বলেন, “এন্টারপ্রেনারশিপেরএই যুগে মিতস্ক্রিয়া ও এন্টারপ্রেনারশিপের ধারণা শেয়ার করার জন্য ‘আইপিডিসি উদ্যোক্তাসামিট ২০১৮’ একটি চমৎকার প্ল্যাটফর্ম। ‘এক্সপান্ড দ্য হরাইজন’ এমন একটি সেশন, যেখানে আমারমতো আইপিডিসি-তে আমার নারী সহকর্মী এবং সকল তরুণ ও নতুন নারী উদ্যোক্তাদের একজায়গায় নিয়ে আসে এবং নতুন নতুন ধারণাকে ব্যবসায়িক রূপ প্রদানের মাধ্যমে অর্থনীতিতেঅবদান রাখার ক্ষেত্রে নারীদের সংশ্লিষ্টতা তুলে ধরে”।

-এসএম

Print Friendly, PDF & Email