লাইফস্টাইলঃ
যাঁদের সকাল বিকাল ব্যায়ামের অভ্যাস আছে তাঁদের জানতে হবে ব্যায়ামের আগের খাবার এবং পরের খাবার এক নয়। সব ধরণের খাবার ব্যায়াম বা ওয়ার্ক আউটের আগে বা পরে খাওয়া যায় না।

ব্যায়ামের ভালো ফলাফলের জন্য ব্যাপারগুলো মেনে চলুন।

ব্যায়াম বা হাটার আগে যা খাবেনঃ

কফি

কলা

ফ্রুট সালাদ

ফ্রুট স্মুদি

সালাদ (শসা, ফল, almond এবং  একটু অলিভ অয়েল)

ডিমের সাদা অংশ

ব্যায়াম বা হাটার পর যা খাবেনঃ

ওটস, সাথে skimmed / nonfat milk

কর্নফ্লেক্স

ফলের রস

স্যুপ

সালাদ ( বেকড মুরগি / মাছ, এভোকেডো  , ক্যাপসিকাম, বাদাম, দই)

প্যান কেক ( ময়দা বা আটা, ডিমের সাদা অংশ, ফল, দুধ)

ব্রেড বা রুটির মধ্যে মুরগির কিমা,সবজি সিদ্ধ করে, একটু চিজ একটা ডিমের সাদা অংশ ঝুরি করে নিয়ে একটু গোল মরিচের গুড়া দিয়ে রোল টোস্ট ( ডিমের সাদা অংশ, একটু মধু  ও দুধে ডুবিয়ে অল্প তেলে ব্রেড ) ওটসের খিচুরি ( ওটস, মুরগী, ডাল,  একটু গাজর,  ফুল কপি,  ক্যাপসিকাম, বা অন্য সবজি) পুডিং ( ডিমের সাদা অংশ, non fat/ skimmed milk, একটু ফল) সাথে সালাদ, গ্রিল চিকেন সাথে রোস্টেড সবজি। 

মনে রাখতে হবে খালি পেটে কখনও ব্যায়াম করা উচিৎ না। কারন হাটা বা ব্যায়ামের ফলে যে ক্যালরি loos হয় যদি খালি পেট থাকে তাহলে কিডনি, হার্টের উপর চাপ পড়ে। এটা অবশ্যই মনে রাখতে হবে হাটতে বা ব্যায়ামের কমপক্ষে ১৫-২০/৩০ মিনিট আগে খেতে হবে।আবার ব্যায়ামের ২০/৩০ মিনিট পর খেতে হবে। ব্যায়াম এর ৪৫ মিনিট এর মধ্যে প্রোটিন ও কার্বোহাইড্রেট দ্রুত শোষণ হয়। খাবার যেন সুষম হয় সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে। Muscle বানাতে চাইলে বেশী প্রোটিন জাতীয় খাবার খেতে হবে। চেষ্টা করবেন natural resource থেকে খাবার নিতে।

বাজারে whey Protien বা milk shake পাওয়া যায়। এগুলো কিডনির জন্য ক্ষতিকারক আর ইউরিক এসিড বাড়িয়ে দেয়। আর যদি ব্যায়াম ওজন কমানোর জন্য হয় তবে ফ্যাট কমাতে হবে সবজি, ফল ও প্রোটিন বাড়াতে হবে। পানি বেশী খাবেন তা না হলে পানি শূন্যতা দেখা দিবে এবং ব্যায়ামের সময় অবশ্যই সাথে পানি রাখুন। ব্যায়ামের আগে ও পরে খাবার মেনে চলুন। ব্যায়াম যেমন আপনাকে সুস্থ রাখবে তেমনি সঠিক উপায়ে ডায়েট ব্যালেন্স আপনার সুস্থতা নিশ্চিত করবে অনেকগুণে।

-সুস্মিতা

Print Friendly, PDF & Email