মোবাইলের ক্ষতিকর তেজস্ক্রিয়তা কত জানবেন কিভাবে

তথ্য ও যোগাযোগঃ
মোবাইলফোন একটি অতি প্রয়োজনীয় ও দৈনন্দিন জরুরি ডিভাইস হিসেবে হ্যবহৃত হচ্ছে।কেউ কেউ এটিকে জীবনের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ হিসেবেও ধরে নিয়েছে। প্রতিনিয়ত এই ডিভাইসটির প্রতি আমাদের আসক্তি বেড়েই চলেছে। আবার আমরা অনেকেই জানি যে, মোবাইল ফোন অতিরিক্ত ব্যবহারে আমাদের বিভিন্ন রকম ক্ষতি হচ্ছে। এর পরও মোবাইলকে এড়িয়ে যেতে পারছি না। কারণ এটি তাৎক্ষনিকভাবে ক্ষতিটা প্রদর্শণ করে না।

মোবাইল ব্যবহারের ফলে আমাদের কী ধরনের ক্ষতি হচ্ছে। আমাদের প্রয়োজনীয় এই ডিভাইসটি আমাদের কী কী ক্ষতি করছে চলুন জেনে নিই

যেভাবে আক্রান্ত হইঃ
আমাদের এই প্রয়োজনীয় ডিভাইসটি দিয়ে আমারা সাধারণত বার্তা আদান প্রদান ও দূর আলাপনীর কাজে ব্যবহার করে থাকি। ফোনটি যখন এই কার্যটি করে থাকে তখন এটি থেকে রেডিয়েশন বা তেজস্ক্রিয়া নির্গত হয়। এই তেজস্ক্রিয়ার প্রভাবে মানব দেহের বিশাল ক্ষতি হয়ে থাকে। আমরা যখন ফোন দিয়ে কথা বলি তখন সেটিকে কানের সঙ্গে বা মাথার কাছে রেখেই কথা বলি। কথা বলার সময় মোবাইল থেকে নির্গত তেজস্ক্রিয়া মস্তিষ্কের কোষগুলোর সংস্পর্শে চলে আসে। ফলে মস্তিষ্ক তথা দেহের অন্যান্য অংশেও প্রভাব পড়ে ও নানা ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকির সৃষ্টি হয় এতে।

তেজস্ক্রিয়া যেভাবে কাজ করেঃ
মোবাইলফোনের নিজস্ব কার্যক্রম সম্পন্ন করতে বা তার কার্য সম্পাদনের জন্য মোবাইলফোন থেকে কিছু চৌম্বকীয় তেজস্ক্রিয়া বা ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক রেডিয়েশন নির্গত হয়। প্রতিটি মোবাইলফোনই রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি বা বেতার তরঙ্গের মাধ্যমে তথ্য স্থানান্তর করে থাকে। এই তরঙ্গটি মূলত এক ধরনের বৈদ্যুতিক চৌম্বকীয় তেজস্ক্রিয়া।

আপনার স্মার্টফোনটি কী পরিমাণ তেজস্ক্রিয়া ছড়াচ্ছে তা জানেন?
নতুন স্মার্টফোন কেনার সময় আমরা প্রায় সকলেই তার ক্যামেরা, ব্যাটারি ব্যাকআপ, ডিসপ্লের সাইজ, প্রসেসর ও স্টোরেজ স্পেসিফিকেশন দেখে নিতে ভুল করি না। এ বিষয়গুলোর সঙ্গে আরো একটা জরুরি বিষয় আমরা দেখে নিতে প্রায় সকলেই ভুল করি। আবার অনেকে বিষয়টি সম্পর্কে জানেনই না। স্মার্টফোনের ওয়েভ ভ্যালুও তার একটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার যা স্মার্টফোন কেনার আগেই দেখে নেওয়া ভালো।

যেভাবে ওয়েভ ভ্যালু জানবেন
প্রত্যেক সংস্থা তার ফোনের ইউজার ম্যানুয়ালে ওয়েভ ভ্যালু উল্লেখ করে দেয়। স্মার্টফোনের বাক্সের মধ্যেই থাকে এই ম্যানুয়াল। তবে স্মার্টফোনের ইউজার ম্যানুয়াল নিশ্চয়ই কেউ সঙ্গে করে নিয়ে ঘোরেন না বা দেখে থাকলেও মনে রাখেন না। ইউজার ম্যানুয়াল ছাড়াও নিজের ফোন থেকেই দেখে নিতে পারবেন সেটির ক্ষতিকর বিকিরণের পরিমাণ। কী ভাবে? আসুন

জেনে নেওয়া যাকঃ
*প্রথমে স্মার্টফোনটি আনলক করুন

*এবার ফোনের ডায়ালার ওপেন করুন

*এবার ডায়াল করুন *#০৭# আর তারপর কল বাটন প্রেস করুন

এবার আপনার স্মার্টফোনের ডিসপ্লেতে প্রদর্শিত হবে ওয়েভ ভ্যালুর পরিমাণ।