রাবি’র ছাত্রী হলে অনিয়ম বন্ধে মানব বন্ধন

রাবি প্রতিনিধিঃ
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রী হলে নানা অনিয়ম ও হেনস্থা বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনেএ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

রোকেয়া হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ও বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি শাকিলা খাতুনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আমাদের ক্যাম্পাসের মেয়েদের হলগুলোতে বিভিন্ন বৈষম্য দৃশ্যমান।

কিছু অযৌক্তিক নিয়ম করে হলগুলোতে ছাত্রীদের স্বাধীনতা ক্ষুন্ন করা হয়েছে। এছাড়া চতুর্থ শ্রেণির কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আচরণে বিভিন্নভাবে হেনস্থার শিকার হতে হয়। হলগুলোতে নিজের মা কে গেস্ট হিসেবে রাখার অনুমতি দেওয়া হলেও অন্য কোন আত্মীয় স্বজন এমনকি নিজের বোনকেও রাখার অনুমতি দেওয়া হয় না।

কর্তৃপক্ষের এহেন আচরণ শুধু বৈষম্যই না এটি ছাত্রীদের জন্য বড় ধরণের অপমানও বটে।

এদিকে বিশ^বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ছাত্রীদের হলে সমস্যা রেখে কখনও কোন বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে যেতে পারে না। এ ধরনের বৈষম্যের বিরুদ্ধে আরো বেশি সচেতন হওয়ারও আহ্বান জানান তিনি।

এসময় মানববন্ধনে বক্তারা সান্ধ্য আইন বাতিল, গেস্ট রাখার অনুমতি দেওয়ার জোর দাবি জানান।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, হিসাববিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মাসুদ রানা, রঞ্জু হাসান, জান্নাতুল নাঈম, ছাত্র ফেডারেশনের ইশরাফিল হোসেন প্রমুখসহ শাখা ছাত্রলীগ, ছাত্র ফেডারেশন, ছাত্র মৈত্রী, ছাত্র ইউনিয়নের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা।

মানববন্ধন থেকে আগামীকাল গণস্বাক্ষর কর্মসূচি ঘোষণা করেন তারা। এসময় মানববন্ধনে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থীর উপস্থিত ছিল।

আরও পড়ুনঃ

উত্যক্ত করায় মসজিদের ইমামকে পিটালো ৩ নারী

উল্লেখ্য,এর আগে বুধবার (১০ এপ্রিল) সকালে রহমতুন্নেছা হলের এক আবাসিক শিক্ষার্থীও বোনকে আপমান করে বের করে দেওয়ার অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা। এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়। ওই দিনই সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করে হলের আবাসিক ছাত্রীরা।

-এসএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter