প্রতিপক্ষ এসপির বাসায় শামীম ওসমানকে আপ্যায়ণ

অনলাইনঃ
নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের বাসায় এক সাথে দুপুরের খাবার খেলেন আওয়ামী লীগের সাংসদ শামীম ওসমান।

এর আগে এসপি হারুনের উদ্যোগে আয়োজিত পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানে অংশ নেন তিনি। রবিবার দুপুরে এমন ঘটনা ঘটে।

শামীম ওসমান সাংসদ ও এসপি হারুন ছাড়াও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই, সরকারি কৌঁসুলি ওয়াজেদ আলী খোকন ও নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল এক টেবিলে বসে খাবর খান।

পয়লা বৈশাখ ১৪২৬ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ৬ এপ্রিল শামীম ওসমান সেখানকার এসপি হারুন অর রশিদের প্রতি হুশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, ‘বেশি খেইলেন না, নারায়ণগঞ্জে আগুন জ্বলবো।’

সেদিন বিকেল ৪টায় ফতুল্লা ইসদাইরে অবস্থিত বাংলা ভবন কমিউমিটি সেন্টারে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত এক জরুরি কর্মীসভায় তিনি এ কথা বলেন।

এসপির প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি আরো বলেছিলেন, ‘শাহ নিজামের (জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক) বিরুদ্ধে জিডি করবেন। টিটুর বিরুদ্ধে মদ স্লাপাইয়ের মামলা দিয়েছেন বলে আমি ভয় পেয়ে গেছি। মানুষ পোশাকধারী সন্ত্রাসীকে দেখতে চায় না। মশা মারতে কামান দাগাতে চাই না। আগামী ১০/১২ দিনের মধ্যে টের পাইবেন।’ উল্লেখ্য, টিটু শামীম ওসমানের শালা।

একই দিন এসপি হারুন পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, ‘মাদক, সন্ত্রাস ও ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে। অপরাধী যত বড় আর শক্তিশালী হোক না কেন, তাকে ছাড় দেয়া হবে না।’

দুজনের এই রকমের হুঁমকি-ধমকিমূলক কথা বলার কয়েকদিনের মধ্যেই এসপির সরকারি বাংলোতে অনুষ্ঠানটিতে অংশ নিয়ে একসাথে দুপরের খাবার খাওয়ার ঘটনা ঘটলো।
-ডিকে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।