এ বাজেট মৌলিক সামাজিক দর্শনের একটি বাজেটঃ ওবায়দুল কাদের

আওয়ামীলীগঃ
শনিবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে বাজেট পরবর্তী দলের এক সংবাদ সম্মেলনে এ বাজেটের নানা দিক তুলে ধরেন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট দেশের আর্থ সামাজিক বিকাশ ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে শক্তিশালী করবে। এ বাজেট মৌলিক সামাজিক দর্শনের একটি বাজেট, জনগণের কল্যাণের বাজেট। এই বাজেট টেকসই অর্থনীতিকে আরো মজবুত করবে

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল গত বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট পেশ করেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বাস্তবসম্মত, ভারসাম্যমূলক, গণকল্যাণমুখী, যুগোপযোগী ও দলের নির্বাচনী ইস্তেহারের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ বাজেট।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত দেশ গঠনের সব উদ্যোগ ও লক্ষ্য অর্জনে কার্যকর বাজেট এটি।

২০২০ সাল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী, এ বাজেট বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও নির্বাচনী ইস্তেহার বাস্তবায়ন এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার বাজেট।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বছরের বাজেটে দলের ঘোষণাপত্র ও নির্বাচনী ইস্তেহারের প্রতিফলন ঘটেছে। এ বাজেটের বিস্তৃতি ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ, ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ।

তিনি বলেন, এ বাজেটে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন, ২১০০ সাল ডেল্টা প্লানের বিস্তৃতি রয়েছে। সময়োপযোগী এ সকল পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

কাদের বলেন, এ বাজেটে বেসরকারী খাতকে পেনশন সুবিধার আওতায় আনার কর্মপরিকল্পনা নেয়া হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে এবং প্রবাসী শ্রমিকদের আয়ের ওপর প্রণোদনা দেয়ার জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এ বাজেট শুধু অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির বাজেট নয়, এটি একটি মানবিক বাজেট। প্রতিবন্ধীদের ভাতা দেয়ার জন্য বরাদ্ধ রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। এ বাজেট টেকসই অর্থনীতিকে মজবুত করার বাজেট।

বাজেট নিয়ে বিএনপির নেতাদের নেতিবাচক সমালোচনার জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা (বিএনপি) এ বছরের বাজেট ঘোষণার পরেও তাদের চিরাচরিত রীতি অনুযায়ী মিথ্যাচার ও অপপ্রচার শুরু করেছে। তাদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া বাজেটের বিস্তৃতি অনুধাবনের ক্ষমতা নেই।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল এমপি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট মৃনালকান্তি দাস এমপি, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর ও কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সদস্য মারুফা আক্তার পপি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

-বাসস

Print Friendly, PDF & Email