মোয়াজ্জেমের জামিন নামঞ্জুর

আইন আদালতঃ

ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন আবেদনটি উত্থাপিত হয়নি বিবেচনায় খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ (মঙ্গলবার) বিচারপতি খিজির হায়াত ও বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় গ্রেপ্তার ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেমের জামিন চেয়ে গত ৩০ জুন আবেদন করেন তার আইনজীবী আহসান উল্লাহ।

আদালতে ওসি মোয়াজ্জেমের পক্ষে শুনানি করেন আহসান উল্লাহ। তার সাথে ছিলেন আইনজীবী সালমা সুলতানা। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এর আগে ১৭ জুন মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক। এই আদেশের বিরুদ্ধেই জামিন আবেদন করেছিলেন আইনজীবী আহসান উল্লাহ।

ওসি মোয়াজ্জেমের আইনজীবী আহসান বলেন, আগামীকাল বুধবার বিচারিক আদালতে এই মামলার দিন রয়েছে। বিচারিক আদালতে জামিনের আবেদন জানানো হবে। এর ফলাফলের ওপর ভিত্তি করেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহানকে গত ৬ এপ্রিল পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেন তাঁর মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। এর ১০ দিন আগে নুসরাত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ জানাতে সোনাগাজী থানায় যান। থানার তৎকালীন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন সে সময় নুসরাতকে আপত্তিকর প্রশ্ন করে বিব্রত করেন এবং তা ভিডিও করে অনলাইনে ছড়িয়ে দেন।

ওই ঘটনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হলে আদালতের নির্দেশে সেটি তদন্ত করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পিবিআই গত ২৭ মে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিলে ওই দিনই ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়।

-এইচএম

Print Friendly, PDF & Email