আসামের নাগরিক তালিকায় নেই ১৯ লাখ মানুষ

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) প্রকাশিত হয়েছে।

বিতর্কিত এ তালিকায় ঠাঁই মেলেনি ১৯ লাখ মানুষের। যারা ভারতের নাগরিকত্ব হারিয়ে কার্যত রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়েছেন। শনিবার (৩১ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১০ টার দিকে রাজ্যটির এনআরসি প্রকাশ করা হয় বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

তবে আসামের রাজ্য সরকার জানিয়েছে, কারও নাম বাদ পড়লেই যে সে বিদেশি এমনটি নয়। এদিকে অঞ্চলটির পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ২ হাজার ৫০০টি সেন্টার খোলা হয়েছে। এর আগে দুটি খসড়া তালিকায় বাদ পড়েছিল প্রায় ৪১ লাখ মানুষ।

প্রতিবেশী বাংলাদেশ থেকে আসা কথিত ‘অবৈধ’ অভিবাসীদের শনাক্ত এবং তাদের বের করে দেয়ার লক্ষ্যে ভারতের বিজেপি সরকার এই তালিকা তৈরির উদ্যোগ নেয়। তবে বাংলাদেশ সরকার দাবি করে আসছে, আসামে তাদের কোনো নাগরিক নেই।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে তিন কোটি ২০ লাখ মানুষের দলিলপত্র যাচাই করে প্রথম খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হয়। যাচাই-বাছাইয়ের পর ওই খসড়ার দ্বিতীয় তালিকাটি প্রকাশিত হয় ২০১৮ সালের ৩০ জুলাই।

এনআরসিতে যাদের নাম রয়েছে তারা প্রমাণ করতে পেরেছেন যে তারা ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চের আগে আসামে এসে হাজির হয়েছেন। নাগরিকত্ব প্রমাণের জন্য রাজ্যের সব অধিবাসীকে তাদের জমির দলিল, ভোটার আইডি এবং পাসপোর্টসহ নানা ধরনের প্রমাণপত্র দাখিল করতে হয়েছিল।

১৯৭১ সালের পর যাদের জন্ম, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিলের মাধ্যমে তাদের প্রমাণ করতে হয়েছে যে তাদের বাবা-মা কিংবা তাদের বাবা-মা ওই তারিখের আগে থেকেই রাজ্যটির বাসিন্দা।

-কেএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter