যুবলীগের সম্মেলন জাতীয় সম্মেলনের আগেই

রাজনীতিঃ
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের আগেই যুবলীগসহ সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলনের আয়োজন করেছে দলটি।

বুধবার রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এর আগে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন ওবায়দুল কাদের। সেখানে তিনি বলেছিলেন, সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করবেন তিনি।

যুবলীগসহ সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলনের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ভারত যাওয়ার আগেই এ বিষয়ে দিকনির্দেশনা দেবেন। পারফরমেন্সের ভিত্তিতে এবার নতুন কমিটি গঠন করা হবে।

এছাড়া যাদের ক্লিন ইমেজ ও উজ্জ্বল ভাবমূর্তি আছে তারাই নির্বাহী কমিটিতে আসবেন। আওয়ামী লীগের নতুন এবং পুরনো সদস্যদের সমন্বয়ে নির্বাহী কমিটি গঠিত হবে। দলের সব ক্ষেত্রে উজ্জ্বল ভাবমূর্তির নেতারা গুরুত্বপূর্ণ পদে স্থান পাবেন। ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করা নেতাদের এবারের নতুন কমিটিতে স্থান হবে না।’

সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দলের মধ্যে চাঁদাবাজ, ক্যাসিনো পরিচালনাকারী ও ধান্দাবাজদের সম্পর্কে আপনারা এতোদিন লেখালেখি করেননি কেন? আমরা অভয়ের দরজা খুলে দিয়েছি। এখন আপনারা লিখুন।’

উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের সম্মেলন নিয়মিত হলেও দলের অন্যতম সহযোগী সংগঠন যুবলীগের সম্মেলনজট লেগেই আছে। সবশেষ ২০১২ সালের ১৪ জুলাই যুবলীগের ষষ্ঠ জাতীয় কংগ্রেস হয়। সেটিও দীর্ঘ ৯ বছর পর। ষষ্ঠ এ কমিটির মেয়াদও ফুরিয়েছে ২০১৫ সালের ১৪ জুলাই। এরপরেও কেটে গেছে প্রায় সাড়ে তিন বছর। অথচ গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রতি তিন বছর অন্তর সম্মেলন হওয়ার কথা।

-ডিকে

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter