দেশে ফিরলেন আরও ১৭২ সৌদি প্রবাসী

প্রবাসী কথাঃ

সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেছেন আরো ১৭২ বাংলাদেশি। গতকাল ২৬ অক্টোবর, শনিবার রাতে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তারা।

চলমান সাঁড়াশি অভিযানে আটক করে তাদের দেশে ফেরত পাঠিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, বেশ কয়েকমাস ধরেই ওয়ার্ক পারমিট বা আকামার মেয়াদোত্তীর্ণ শ্রমিকদের আটক করে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাচ্ছে সৌদি আরব। তবে গতকাল ফিরে আসা বাংলাদেশিদের অনেকেই দাবি করেছেন, তাদের আকামার মেয়াদ থাকার পরও ফেরত পাঠানো হয়েছে।

১০-১২ বছর ধরে সৌদি আরবে বৈধভাবে কাজ করার পরও এমন ভোগান্তিতে পড়েছেন কেউ কেউ। হুট করে তাদের জোর করে দেশে ফেরত পাঠানো বিপাকে পড়েছেন তারা।

এ ব্যাপারে সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকেও কোনো সহযোগিতা পাননি বলে ভুক্তভোগীদের অনেকে অভিযোগ করেছেন।

তারা বলছেন, বেশ কিছুদিন ধরে সৌদি আরবে ব্যাপকহারে ধরপাকড়ের শিকার হচ্ছেন বাংলাদেশি কর্মীরা। সেই অভিযান থেকে বৈধ আকামা থাকা ব্যক্তিরাও বাদ যাচ্ছেন না।

এদের অধিকাংশই কর্মস্থল থেকে বাসস্থানে ফেরার পথে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন বলে অভিযোগ। তারা জানান, গ্রেপ্তার হয়ে ফোন করলেও তাদের নিয়োগকর্তারা কোনো দায়িত্ব নেননি। বরং আকামা থাকা সত্ত্বেও কর্মীদের ডিপোর্টেশন ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

তবে দীর্ঘদিন অবৈধভাবে থাকার কারণেও অনেককে আটক করে দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে এখনই ব্যবস্থা নেয়া না হলে সমস্যাটি বড় আকার ধারণ করবে বলেও মনে করছেন তারা।

এর আগে গত ২৫ অক্টোবর, শুক্রবার রাতে সৌদি আরব থেকে দেশে ফেরেন আরো ২০০ বাংলাদেশি। এ নিয়ে এ বছর সৌদি আরব থেকে ফিরে আসা বাংলাদেশিদের সংখ্যা ১৬ হাজার ছাড়িয়েছে।

-কেএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter