রাবির দুই শিক্ষকের পাল্টা জিডি

রাবি প্রতিনিধিঃ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রপ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক আলী আসগর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করার তিন দিন পর একই বিভাগের অধ্যাপক খাইরুল ইসলাম পাল্টা জিডি করেছেন।

৯ নভেম্বর অধ্যাপক আসগর নিরাপত্তা চেয়ে নগরীর মতিহার থানায় জিডি করেন। জিডিতে তিনি অভিযোগ করেন, ‘বিভাগ সংক্রান্ত বিষয়ে হাইকোর্টে করা রিট তুলে না নিলে অধ্যাপক খাইরুল ইসলাম তার ক্ষতি করবেন।’

এর আগে এক শিক্ষকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ওই বিভাগে নতুন বিজ্ঞপ্তি অনুসারে শিক্ষক নিয়োগ না দিতে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ওই বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষক নিয়োগের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। একই সঙ্গে নতুন বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষক নিয়োগ কেন অবৈধ নয় তার কারণ জানতে চান আদালত।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ১১ নভেম্বর (মঙ্গলবার) জিডি করলেন অধ্যাপক খাইরুল ইসলাম। মতিহার থানা পুলিশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

অধ্যাপক খাইরুল ইসলাম তার জিডিতে উল্লেখ করেছেন, ‘৫ নভেম্বর অধ্যাপক আলী আসগরের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ফেল করিয়ে দেয়া এবং তার অসৌজন্যমূলক ও অসদাচরণ প্রসঙ্গে অভিযোগ দাখিল করেন খাইরুল ইসলাম। এ ঘটনায় পরদিন তাকে গালমন্দ করে দাখিলকৃত তথ্যাবলির মূলকপি চান অধ্যাপক আসগর। এমনকি অভিযোগ তুলে না নিলে তার পক্ষে যা করা সম্ভব সবকিছুই করবেন বলে খাইরুল ইসলামকে ভয় দেখান অধ্যাপক আসগর।’

তবে অধ্যাপক আলী আসগর দাবি করেন, অধ্যাপক খাইরুল ইসলাম জিডিতে যে বিষয়গুলো উপস্থাপন করেছেন তা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন।

-কেএম

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter