বিবর্ণ বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা

স্পোর্টসঃ
আজ থেকে শুরু হয়েছে ঐতিহাসিক গোলাপি বলের দিবারাত্রির টেস্ট।

প্রথমবারের মতো গোলাপি বলের দিবারাত্রির খেলতে নেমেছে বাংলাদেশ-ভারত। ঐতিহাসিক গোলাপি বলের টেস্টে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। ইন্দোর টেস্টের মত এই টেস্টেও বিবর্ণ বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা।

ভারতীয় বোলারদের পেস, সুইংয়ের আগুনে দিশেহারা বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা।

২২ নভেম্বর, শুক্রবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে সাবধানি শুরুর চেষ্টা করলেও সেটা হতে দেননি ইশান্ত শর্মা। ৬.২ বলে ইশান্ত শর্মার বলে ক্যাচ আউটের সিদ্ধান্তে রিভিউ নিয়ে বেঁচে গেলেও শেষ রক্ষা হয়নি ইমরুলের। পরের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে ১৫ বলে চার রান করে সাজঘরে ফিরেন। সে বলে রিভিউ নিলেও শেষ রক্ষা হয়নি ইমরুলের। ইমরুলের বিদায়ের পর যেন শুরু হয় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের আসা যাওয়ার মিছিল। ইমরুলের বিদায়ের পর গোলাপির রঙের মুর্ছনায় নিজেদের রাঙ্গাতে পারেনি ব্যাটসম্যানরা।

একে একে সাঝঘরে ফিরেন মুমিনুল, মুশফিক, মিঠুনরা। উমেশ যাদবে বলে স্লিপে রোহিত শর্মার দুর্দান্ত ক্যাচে কোন রান না করেই সাঝঘরে ফিরেন মুমিনুল হক। মুমিনুলের বিদায়ের পর নিজের ২য় বলেই ঐ ওভারে বোল্ড হয়ে কোন রান না করেই ফিরেন মিঠুন। আর তার পরের ওভারে শামির বলে বোল্ড হয়ে কোন রান না করেই সাঝঘরের পথো হাঁটেন মুশফিক। রিয়াদ লিটন প্রতিরোধের চেষ্টা চালালেও তা সুদীর্ঘ হয়নি। ইশান্ত শর্মার বলে সাহা দুর্দান্ত ক্যাচ নিলে মাত্র ৬ রান করেই ফিরতে হয় রিয়াদকে।

শেষ দিকে লিটন একা প্রতিরোধ করা চেষ্টা করলেও শামির বাউন্সারে আহত হয়ে ৫ চারের সাহায্যে ২৪ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট আউট হন। ভারতের হয়ে তিনটি উইকেট নেন উমেশ যাদব, দুটি ইশান্ত শর্মা আর একটি মোহাম্মদ শামি।

প্রথম সেশন শেষে বাংলাদেশে সংগ্রহ ২১.৪ ওভারে ৬ উইকেটে ৭৩ রান।
দুই অপরাজিত ব্যাটম্যান নাইম হাসান ০ (২), আবু জায়েদ রাহি ০ (০) ।

প্রথম সেশন শেষে স্কোরকার্ড:

বাংলাদেশ : ৭৩/৬ (ওভার ২১.৪) সাদমান ২৯, লিটন ২৪ (রিটায়ার্ড হার্ট) উমেশ যাদব ৩/২৯, ইশান্ত ২/১১।

-ডিকে

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter