তীব্র শীতে ৫০ জনের মৃত্যু

সারাদেশঃ

তীব্র শীত অব্যাহত থাকার কারণে দেশজুড়ে অন্তত ৫০ জন মানুষ শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স রবিবার (২৯ ডিসেম্বর) এই খবর প্রকাশ করে।

সরকারের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা আয়েশা আখতার রয়টার্সকে জানান, ১ নভেম্বর থেকে ২৮ ডিসেম্বরের মধ্যে অন্তত ১৭ জন তীব্র শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণে মারা গেছে। অপরদিকে ৩৩ জন রোটাভাইরাসজনিত ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। এছাড়া অন্যান্য শীতজনিত রোগেও অনেকেই প্রাণ হারিয়েছে।

তিনি জানান, ইনফ্লুয়েঞ্জা, পানিশূন্যতা এবং নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত রোগীতে হাসপাতাল ভরে গেছে।

আয়েশা আখতার উল্লেখ করেন, এই শীতে নিম্ন আয়ের মানুষ বিশেষ করে শ্রমিকেরা ঠান্ডাজনিত রোগে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন। মূলত গরম কাপড়ের অভাবেই তারা সহজেই শীতে কাবু হয়ে পড়ছেন। এছাড়া এসময়ে শিশু এবং বৃদ্ধরাও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন।

এদিকে রবিবার চলতি বছর দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। আবহাওয়া কর্মকর্তা জানান, রবিবার সকালে তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস (৪০.১ ডিগ্রি ফারেনহাইট)।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এই শীতল আবহাওয়া, ঘন কুয়াশা আরো কয়েকদিন অব্যাহত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

বিমান চলাচলকারী কর্মকর্তা জানান, ঘন কুয়াশার কারণে বেশ কয়েকটি ফ্লাইট বিলম্বে ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন তারা।

ঢাকা শহরের একজন রিকশাচালক আব্দুর রহিম বলেন, ‘আমার কিছুই করার নেই। এই শীতের মধ্যেও পরিবারের সদস্যদের খাওয়ানোর জন্যই আমাকে বের হতে হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘তীব্র শীতে মানুষজন বাইরে বের হচ্ছেন কম, ফলে যাত্রীর সংখ্যাও কমে গিয়েছে। শীতে রিকশা চালানো অনেক কষ্টের কাজ। মনে হয়, ঠান্ডায় শরীর যেন জমে বরফ হয়ে গিয়েছে।’

-ডিকে

Print Friendly, PDF & Email
FacebookTwitter